বিউটি টিপস

হলির রঙের কারণে ত্বক খারাপ হয়ে গেছে নাকি?

বাজার চলতি রঙের মধ্যে উপস্থিত হাজারো কেমিকেলের মারে হলির পরে ত্বক খারাপ হয়ে যাওয়াটা অস্বাভাবিক নয়। এক্ষেত্রে এই প্রবন্ধে আলোচিত ঘরোয়া চিকিৎসাটি দারুন কাজে আসতে পারে। প্রসঙ্গত, ত্বক যখন শুষ্ক হয়ে যায়, তখনই দেখা দেয় হরেক রকমের ত্বকের রোগ।

তাই স্কিনকে সব সময় আদ্র রাখাটা একান্ত প্রয়োজন। আর এই কাজটিই করে থাকে এই ঘরোয়া ওষুধটি।
কী কী উপকরণের প্রয়োজন পরবে?
১. কয়েক টুকরো পাঁউরুটি
২. ২ চামচ দুধের সর বা মালাই
৩. ১ চামচ হলুদ গুঁড়ো
৪. ১ চামচ হালকা গরম জল
৫. ১ চামচ গোলাপ জল

পেস্টটি বানানোর পদ্ধতি:
১. একটা পাঁউরুটি নিয়ে কয়েক টুকরো করে নিন। (৫-৮ পিস পাঁউরুটির টুকরোর প্রয়োজন পরবে)
২. এবার ২ চামচ দুধের সর মেশান পাঁউরুটির টুকরোগুলির সঙ্গে।
৩. ১ চামচ হলুদ গুঁড়ো মেশান।
৪. এবার ১ চামচ হালকা গরম জল মেশান।
৫. ১ চামচ গোলাপ জল মেশান।
৬. সবকটি উপকরণ এবার ভাল ভাবে মেখে নিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে ফেলুন।

কীভাবে এই পেস্টটা মুখে লাগাতে হবে?
১. সারা মুখে ভাল করে পেস্টটা লাগিয়ে ফেলুন।
২. পেস্টটা গোলাকার ছন্দে লাগাবেন।
৩. ১০-১৫ মিনিট পেস্টটা কম করে রাখতে হবে। এই সময় মুখটা ভাল করে মাসাজ করবেন
৪. সময় হয়ে গেলে হালকা গরম জল দিয়ে মুখটা ধুয়ে ফেলবেন।
৫. মুখটা ভাল করে মছে নিয়ে ময়েসচারাইজার লাগাবেন।

পাঁউরুটির উপকারিতা:
১. পাঁউরুটি ত্বককে আদ্র করে।
২. ত্বকের উপরে অংশে জমে থাকা ময়লা ধুয়ে ফেলে।
৩. মৃত কোষ যাতে জমতে না পারে সেদিকে খেয়াল রাখে।
৪. ময়লা জমে ত্বকের ছিদ্রগুলি যাতে বন্ধ হয়ে না যায়, সেদিকেও কেয়াল রাখে।

হলুদের উপকারিতা:
১. এতে রয়েছে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটারি প্রপাটিজ, যা ত্বকের প্রদাহ কমায়।
২. হলুদে থাকা অ্যান্টি-ব্য়াকটেরিয়াল উপাদান ত্বকের জ্বালাভাব এবং চুলকানি কমায়।
৩. দীর্ঘক্ষণ ত্বককে আদ্র রাখে।
৪. রঙে উপস্থিতি নানা ক্ষতিকর কমিকেলের কুপ্রভাব কমায়। ফলে ত্বকের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা কমে।

দুধের সর বা মালাইয়ের উপকারিতা:
১. এতে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় ভাল ব্যাকটেরিয়া, যা ত্বককে আদ্র রাখতে সাহায্য করে।
২. ত্বকের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটায়।
৩. ত্বকের ছিদ্রগুলিকে ছোট করে। ফলে ময়লা জমে নানা ধরনের স্কিনের সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা কমে।

***এই ধরনের আরও টিপস-ট্রিকস, অফার এবং শিক্ষামূলক পোস্ট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন***

গোলাপ জলের উপকারিতা:
১. ত্বকের ঔজ্জ্বলতা বাড়ায়, সেই সঙ্গে ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে।
২. ব্রণ হওয়ার আশঙ্কা কমায়।
৩. ত্বককে টানটান করে। ফলে বয়সের ছাপ পরে না, বৃদ্ধি পায় ত্বকের সৌন্দর্য।

You must be logged in to post a comment Login

নতুন পোস্ট’সমূহ

To Top