বিউটি টিপস

ফর্সা হতে চান? তাহলে এই ফলগুলির খোসা সঙ্গে রাখুন

ভাবছেন কী আবত-তাবল বোকছি, তাই তো? কিন্তু বাস্তবিকই ফলের খোসা ত্বককে উজ্জ্বল করতে দারুন কাজে আসে। কারণ এতে রয়েছে একাধিক পুষ্টিকর উপাদান, যা ত্বকের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটিয়ে ত্বককে ফর্সা এবং প্রাণবন্ত করে তোলে।

ফর্সা ত্বক পেতে কে না চায় বলুন। তাই তো গত কয়েক বছরে সারা বিশ্বে বিউটি প্রডাক্টের রমরমা এত চোখে পড়ার মতো বেড়েছে। আপনার মনেও যদি এমন ইচ্ছা থাকে, তাহলে এই প্রবন্ধটি আপনার জন্যই লেখা। প্রসঙ্গত, ফলের খোসাতে যেমন অনেক ধরনের পুষ্টিকর উপাদান থাকে, তেমনি নানা ধরনের ভিটামিনও থাকে প্রচুর পরিমাণে। তাই তো ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে এদের কাজে লাগানোর পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। প্রসঙ্গত, অনেকেই মনে করেন কেবল মাত্র কমলা লেবুর খোসা শরীরের পক্ষে ভাল, বাকি ফলের বহিরাংশ একেবারেই স্বাস্থ্যকর নয়। এই ধরণা কিন্তু একেবারেই ঠিক নয়। তাই তো এই প্রবন্ধটির মাধ্যমে আপনাদের জানাতে চলেছি কোন কোন ফলের খোসা ত্বককে সুন্দর করে, সে সম্পর্কে।

১. কলার খোসা:
একাধিক ত্বকের রোগ সারানোর পাশাপাশি কলার খোসায় উপস্থিত ভিটামিন এবং পুষ্টিকর উপাদান ত্বককে উজ্জ্বল এবং প্রাণবন্ত করতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই তো সপ্তাহে কম করে দুবার কলার খোসা ভাল করে মুখে ঘষার অভ্যাস করুন। এমনটা করলে দেখবেন অল্প দিনেই ত্বক সুন্দর হতে শুরু করেছে।

২. কমলা লেবুর খোসা:
একাধিক প্রসাধনিতে কমলা লেবুর খোসা দিয়ে তৈরি পাউডার ব্য়বহার করা হয়। কেন জানেন? কারণ ত্বককে সুন্দর করতে এর কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। তাই তো প্রতিদিন যদি কমলা লেবুর খোসা মুখে ঘষা যায়, অথবা এটা দিয়ে বানানো কোনও ফেস প্যাক মুখে লাগানো যায়, তাহলে ফর্সা ত্বক পাওয়ার স্বপ্ন পূরণে একেবারেই সময় লাগে না।

৩. পেঁপের খোসা:
সেই আদি কাল থেকে ত্বককে সুন্দর করতে পেঁপের খোসার ব্যবহার হয়ে আসছে। কারণ এতে উপস্থিত একাধিক পুষ্টিকর উপাদান ত্বককে উজ্জ্বল করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

৪. ডালিম খোসা:
এতে রয়েছে এমন কিছু উপাদান, যা ত্বকের উপরিঅংশে জমে থাকা মৃত কোষের আস্তরণকে সরিয়ে ফেলে। সেই সঙ্গে ত্বকের পি এইচ লেভেলকে স্বাভাবিক করে ত্বককে উজ্জ্বল করে তোলে।

৫. আপেলের খোসা:
এতে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় স্কিন হোয়াইটনিং প্রপাটিজ। যে কারণে প্রতিদিন এটি মুখে লাগালে ত্বক অল্প দিনেই ফর্সা হতে শুরু করে। প্রসঙ্গত, ভাল ফল পেতে প্রথমে আপেলের খোসাটা ছাড়িয়ে নিন। তারপর খোসগুলি একবাটি জলে ডুবিয়ে কিছুক্ষণ জলটা গরম করুন। যখন দেখবেন জলটা ঠান্ডা হয়ে গেছে, তখন সেটা ধীরে ধীরে সারা মুখে লাগিয়ে ফেলুন। এমনটা কয়েক সপ্তাহ করলেই ফল পাবেন একেবারে হাতে-নাতে।

৬. লেবুর খোসা:
ত্বক উজ্জ্বল করতে লেবুর রসের ভূমিকা নিয়ে কারও মনে সন্দেহ না থাকলেও লেবুর খোসাও যে একই কাজ করে, তা অনেকে বিশ্বাস করতে চান না। কিন্তু একথা ঠিক যে লেবুর খোসা দিয়ে বানানো পাউডার ফেস প্যাকের সঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগালে দারুন ফল পাওয়া যায়। এই মিশ্রনটি ত্বককে উজ্জ্বল করার পাশাপাশি নানা রকমের রোগের হাত থেকেও রক্ষা করে।

***এই ধরনের আরও টিপস-ট্রিকস, অফার এবং শিক্ষামূলক পোস্ট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন***

৭. নাসপাতির খোসা:
এতে রয়েছে ফাইবার, যা ত্বককে উজ্জ্বল করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। প্রসঙ্গত, এটি সরাসরি মুখে না লাগিয়ে এক বাটি জলে কিছুক্ষণ চুবিয়ে রেখে ওই জলটা কিছুক্ষণ গরম করে নিন। তারপর সেই জলটা সারা মুখে লাগান। মাসে মাত্র একবার এইভাবে নাসপাতির খোসা মুখে লাগালেই দেখবেন ত্বক কেমন ফর্সা হয়ে ওঠে।

You must be logged in to post a comment Login

নতুন পোস্ট’সমূহ

To Top