লেখাপড়া

বিসিএস প্রশ্ন জিজ্ঞাসা [সার্কুলার জিজ্ঞাসা]

বিসিএস এর সার্কুলার পরবর্তী নানা দিক নির্দেশনা নিয়ে আমরা আসছি আপনার প্রশ্নের সম্মুখে উত্তর নিয়ে। এই আসন্ন বিসিএস নিয়ে আপনার ক্যারিয়ার গঠনে যেকোনো প্রশ্ন আমাদের জানান। আমরা আপনাদের সকল প্রশ্ন নিয়ে তৈরী করব “সার্কুলার জিজ্ঞাসা”।

ভুল পথে ভুল সিদ্ধান্তে না হেঁটে সঠিক সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে সঠিক মানুষের পরামর্শ দরকার। আমাদের অভিজ্ঞ সম্মানীত ক্যারিয়ার এক্সপার্ট ও সম্মানীত বিসিএস ক্যাডারগণ আপনার প্রশ্নের ব্যাখ্যা সহ উত্তর দিবেন। আপনার প্রশ্নগুলো লিখে জানান। প্রয়োজনে আপনার বন্ধুদের ম্যানশান করুন, যেন তারাও সঠিক তথ্য জানতে পারে।

বিসিএস জিজ্ঞাসা-1
————————————
আপনাদের নানামুখী প্রশ্ন নিয়ে এই পর্বের উত্তর দিয়েছেন বাংলাদেশ দুতাবাস, এথেন্সের সম্মানীত প্রথম সচিব জনাব সুজন দেবনাথ।
> স্যার, আমি বিবিএস কমপ্লিট করে মাস্টার্স করছি আমি বিসিএস দিতে পারব?
– মাস্টার্স কমপ্লিট হলে বা ৪ বছরের অনার্স কোর্স থাকলেই পারবেন।
> দাদা, আমি শুধু হেলথ ক্যাডারে দিতে চাই। এটা কী কোনো সুবিধা বা অসুবিধার সৃষ্টি করবে ভাইভাতে?
– শুধু হেলথ ক্যাডারে দিতে চাইলে এটা ভালো, পজিটিভ দিক। তবে হেলথ ক্যাডার ফার্স্ট চয়েজ দিয়ে আপনি চাইলে অন্যান্য পদগুলো পরবর্তী চয়েজে রাখতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে হেলথ ক্যাডারে ফার্স্ট চয়েজে দিলে অন্যান্য চয়েজ ক্যাডার পাওয়ার সম্ভাবনা কম।
> স্যার, কোন ক্যাডারে নিজ জেলায় পোস্টিং দেয়?
– এডুকেশন, হেলথ ক্যাডারে।
> সর্বোচ্চ কয়টি চয়েজ দেয়া যাবে?
– কোনো আপার লিমিট নেই।
> আমি শুধু এডমিন ক্যাডার দিতে চাই। এতে কি কোনো সমস্যা হবে?
– একটা দিলে ক্ষতি নেই। তবে আমার মতে কয়েকটা দেয়া ভালো।
সবার জন্য শুভ কামনা।

বিসিএস জিজ্ঞাসা-2
————————————
এই পর্বের উত্তর দিয়েছেন সম্মানীত এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জনাব নিজাম আহমেদ। আপনাদের দেয়া শত শত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দিচ্ছেন কিছু ক্যারিয়ার এক্সপার্ট লিজেন্ড, যারা নিজেদর জীবনকে আলোকিত করে সেই আলো জ্বালিয়ে দিচ্ছেন সবখানে। সাথে আছেন আমাদের ক্লাবের সম্মানীত ক্যারিয়ার এক্সপার্টরা। প্রশ্ন করুন আপনি, ব্যাখ্যা সহ উত্তর দিব আমরা।
>>উচ্চতা ৫ ফুট ২ ইঞ্চি,ওজন ৪৮ কেজি,পুরুষ, শারিরিক যোগ্যতা ম্যাজিস্ট্রেট বা প্রশাসনের চাকরির ক্ষেত্রে সমস্যা করবে কিনা?আর গোপনে লাভ ম্যারিজ করে আবদন ফরমে অবিবাহিত দিলে কোন প্রবলেম হবে কিনা?
– বিজ্ঞপ্তিতে যে শারীরিক যোগ্যতা চাওয়া হয়, তার বাইরে আর কিছু দরকার নাই। বিয়ের ব্যাপারে উত্তর হল, কোনো কিছু গোপন করে ভুল তথ্য দিলে, পরবর্তীতে তা প্রমাণ হলে শাস্তি পেতে হবে।
>> স্থায়ী ঠিকানার সাথে যদি আইডি এর ঠিকানার মিল না থাকে তাহলে কি কোনো সমস্যা হবে?
– আমার ক্ষেত্রে সমস্যা হয়নি। বিপিএসসি ফরমে যে ঠিকানা দিবেন সেটাই যাচাই করা হবে।
>>প্রশাসন ….ইকোনমি ….তথ্য ….বন ….শিক্ষা এই ক্রমে choose দিতে চাই ।ঠিক আছে? ???বন দফতর নিয়ে বিস্তারিত জানতে চাই । শিক্ষা ক্যাডার choose দিলে স্থানীয় ঠিকানা যেখানে দিবো সেখানে কী posting হবে???
– চয়েজের ক্রম ঠিক আছে কি না সেটা গড়পড়তা বলা যায়না। প্রার্থীর ব্যাকগ্রাউন্ড, শুন্যপদ সংখ্যা ইত্যাদি অনেক ফ্যাক্টর বিবেচনা করে বলতে হয়। এডুকেশন ক্যাডারে নিজ জেলায় পোস্টিং পাওয়া যায়।
>> Q-1: In my national ID card my signature in Bangla letter.
If I put english letter Signature in BCS form, will it make any problem?
– No problem
>> শুধু প্রশাসন ক্যাডার চয়েস দিতে চাই। এতে কি কোনো অসুবিধা হবে একটা চয়েজ দেয়াতে?
– কোনো সমস্যা নেই। তবে ভাইভাতে কারণ দেখাতে হবে। এজন্য একাধিক চয়েজ দেয়া ভালো।
>> আমি যদি প্রশাসন ক্যাডারে কোয়ালিফাই হই, তাহলে আমি কি ২/৩ বছর পর নিজ জেলায় পোস্টিং পাব?
– নিজ জেলায় পোস্টিং পাবেন না।
>> আমি শুনেছি ভাইভাতে নাকি লবিং লাগে, কথাটা কি সত্য?
– যোগ্যতা থাকলে এসব কিছুই লাগবে না। আর যোগ্যতা না থাকলে এসব লবিং দিয়েও কাজ হবে না।
______________

বিসিএস জিজ্ঞাসা-3
————————————
এই পর্বের ক্রিটিক্যাল প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা জনাব এম আই প্রধান (মুকুল)। আসন্ন বিসিএস নিয়ে আপনার সকল সমস্যার সমাধান তুলে ধরতে আমাদের এই প্রয়াস।
আপনাদের প্রশ্নগুলো নিয়েই আমাদের পর্বগুলো সাজানো।
> ১> স্যার, শিক্ষা ক্যাডারের জন্য কি অনার্স বা মাস্টার্স এ নির্দিষ্ট রেজাল্ট থাকতে হয়? ডিগ্রি মাস্টার্স করা স্টুডেন্টরা কি শিক্ষা ক্যাডার চয়েজ দিতে পারবে?
=শিক্ষা ক্যাডারের জন্য-
ক) শিক্ষাক্ষেত্রে ৩য় শ্রেণি গ্রহনযোগ্য হবে না।
খ) সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ৪ বছরের অনার্স লাগবে। ৩ বছরের অনার্স হলে সেক্ষেত্রে মাস্টার্স লাগবে।
গ) ৩ বছর মেয়াদী ডিগ্রী করে তারপর মাস্টার্স করলেও শিক্ষা ক্যাডার হবে না।তবে জেনারেল ক্যাডারের অন্তর্ভুক্ত অন্যান্য সকল ক্যাডার হবে।
সুতরাং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে কমপক্ষে ৪ বছরের ডিগ্রী না হলে শিক্ষা ক্যাডারে আবেদন করা যাবে না।
২> আসসালামুয়ালাইকুম স্যার,
প্রশ্ন-«ক» স্যার,বোথ ক্যাডার থেকে ভাইভা দিয়ে জেনারেল ক্যাডার প্রাপ্তির হার বেশি? নাকি জেনারেল ক্যাডার থেকে ভাইভা দিয়ে জেনারেল ক্যাডার পাওয়ার হার বেশি? কোনো অবজারভেশন যদি দিতেন প্লিজ দাদা।
প্রশ্ন«খ»বিসিএসের মাধ্যমে নন-ক্যাডার নিয়োগে কি জেনারেল,বোথ এগুলো ফ্যাক্টর হয়?কারা বেশি নন-ক্যাডার থেকে নিয়োগ পায়?
=ক) বোথ ক্যাডার থেকে জেনারেল ক্যাডার হবে নাকি টেকনিক্যাল/ শিক্ষা ক্যাডার হবে নির্ভর করে জেনারেলের ৯০০ নম্বর ও ক্যাডার চয়েজের উপর। জেনারেল এর ৯০০ নম্বরের যে যত বেশি নম্বর পাবে সে ততো তার ক্যাডার চয়েজের প্রথম দিকের পদ পাবে।সেক্ষেত্রে টেকনিক্যাল/শিক্ষা ক্যাডার কারও শেষ দিকের চয়েজে দেয়া থাকলে আর জেনারেল ক্যাডারের টোটাল মার্ক্স থেকে অপেক্ষাকৃত কম মার্ক্স পেলে কাছাকাছি কম নম্বর প্রাপ্ত দের সাথে লড়াই হয়ে শিক্ষা/টেকনিক্যাল ক্যাডার প্রাপ্তি ঘটবে।
(খ) নন ক্যাডার প্রাপ্তিতে বোথ ক্যাডারের কোন ভুমিকা থাকে না। ক্যাডার হবার ক্ষেত্রে যারা অল্প কিছু মার্ক্স পিছনে থাকে তাদের নন ক্যাডারের জন্য তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত করা হয়।কিন্তু সেই তালিকায় যাদের মার্ক্স বেশি উপরের দিকে থাকে তারাই নন ক্যাডার পদে প্রথমে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়ে থাকে।জেনারেল বা বোথ এখানে কোন ভুমিকা রাখে না।
৩> থাকি ঢাকায়, বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা একই দিতে চাই। সমস্যা হবে?
২. ফৌজদারি মামলা আছে কিন্তু চার্জশিট হয়নি অথবা মামলা উঠিয়ে নিবে। অথবা আগে মামলা ছিলো পরে বাদি মামলা উঠিয়ে নিয়েছে। এতে ভেরিফিকেশনের সমস্যা হবে?
= (ক) পৈত্রিক সম্পত্তি আছে এরকম যায়গায় স্থায়ী ঠিকানা দিবেন।ভাল হয় স্তায়ী ঠিকানাতেই বর্তমান ঠিকানা দিলে।কেননা বিসিএস হতে ২-৪ বছর লেগে যায়।এত সময় আপনার অস্থায়ী ঠিকানা পরিবর্তন হতে পারে।তাই স্থায়ী ঠিকানাতেই বর্তমান ঠিকানা দেবার কথাই আমি পরামর্শ দিয়ে থাকি।
খ) যেকোন মামলায় দোষী হিসেবে সাজাপ্রাপ্ত না হলে আপনি কিন্তু দোষী হিসেবে সাব্যস্ত হন নি।সুতরাং সাজাপ্রাপ্ত না হলে বিসিএস নিয়োগে কোন সমস্যা নাই।
৪> দাদা, আমার ন্যাশনাল আইডি এর ফিংগার প্রিন্ট এখন আর ম্যাচ করে না । কোনো সমস্যা হবে?
=ন্যাশনাল আইডিতে ফিংগার প্রিন্ট না মেলার কারন দেখিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন করুন।বিসিএস পরীক্ষায় এক্ষেত্রে আপাতত কোন সমস্যা হবে না।তবে পরবর্তিতে এই ফিংগার প্রিন্ট আপনার লাগতে পারে।
৫> স্হায়ী ঠিকানার বিষয়টা ক্লিয়ার করবেন প্লিজ।যাদের নিজস্ব জায়গা নেই তারা কেন সরকারি চাকরি পাবে না?সংবিধানে কোথাও উল্লেখ অাছে কি?সুপারিশ হবার পর দেশের যেকোনো প্রান্তে জায়গা কিনলে সমস্যার সমাধান হবে কি?
=দেশের নাগরিক হবার ক্ষেত্রে পৈত্রিক সম্পত্তি জরুরি।আর পৈত্রিক সম্পত্তি না থাকলে আপনি নিশ্চিত ঝামেলায় পরবেন।পুলিশ ভেরিফিকেশনে ঝামেলা ছাড়াও নিয়োগপ্রাপ্ত হলেও যোগদান বিলম্বিত হবে।সুতরাং বিষয়টিকে অধিক গুরুত্ব দিয়ে দেখতে হবে।
৬> স্যার, আমি শুধু এডুকেশন ক্যাডার দিতে চাই। এতে কি আমার কোনো অসুবিধা হবে?
=শুধু শিক্ষা ক্যাডার প্রথম ও একমাত্র চয়েজ অনেকেই দেন।এতে অন্য কোন ঝামেলা নেই।
৭> দাদা,বিসিএস সমবায় ক্যাডার এর সুবিধা,,অসুবিধা গুলো কি কি? প্রথমে কোথায় posting দেয়?
=অন্যান্য ক্যাডারদের মতই বিসিএস সমবায় ক্যাডারে পদায়ন হয়।সাধারণত জেলা শহরেই পদায়ন হয়ে থাকে।
৮> আমাদের ডাকঘর সরকারি ভাবে পরিবর্তন হয়েছে কিন্তু জাতীয় পরিচয় পত্রে আগেরটা রয়ে গেছে। এক্ষেত্রে কোন সমস্যা আছে কি? আমি আবেদনের সময় কোনটা ব্যবহার করব?
= ডাকঘরের ঠিকানা পরিবর্তন হলে আপনার ন্যাশনাল আইডিতে থাকা পুরাতন আইডি ঠিকানার কারনে কোন সমস্যা হবে না।বর্তমানের নতুন ঠিকানা ব্যাবহার করবেন।তবে পরবর্তিতে সময় করে আইডির পুরাতন ঠিকানা ঠিক করে নিবেন।
৯> কালার ব্লাইন্ড হলে কেউ কি পুলিশ ক্যাডারের জন্য অনুপযোগী হবে?
=পুলিশ ক্যাডারে কালার ব্লাইন্ড গ্রহনযোগ্য নয়।তবে অন্যান্য চয়েজ দিতে পারবেন।
১০> বিবাহিত মহিলাদের ক্ষেত্রে স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে পিতার ঠিকানা ব্যবহার করতে পারবে কি না?
=মেয়েদের ক্ষেত্রে আমি স্থায়ী ঠিকানা সবসময় পিতার ঠিকানা দিতে বলি।এক্ষেত্রে স্থায়ী ও বর্তমান উভয়ই পিতার ঠিকানা দেয়া সেইফ।কারন যেকোন কারনে শশুরবাড়ীর সাথে সম্পর্ক নাও থাকতে পারে বা শশুর বাড়ীর কেউ কেউ আপনার বিসিএস হোক তা নাও চাইতে পারে।এক্ষেত্রে পিতার ঠিকানাই ভাল।
১১> প্রথমবার বিসিএস দেয়ার সময় প্রস্তুতি যদি মোটামুটি থাকে আর যদি শিক্ষা ক্যাডার থাকে তাহলে বোথ ক্যাডার দিলে কোন সুবিধা অসুবিধা থাকবে কিনা।
= প্রথম বিসিএসেই বোথ ক্যাডার দেয়া যায়।কোন সমস্যা নাই। মনে রাখবেন বোথ ক্যাডারের জন্য কেবল আপনার নিজের বিষয়ের উপর অতিরিক্ত ২০০ নম্বরের দুইটি অতিরিক্ত পরীক্ষা দিতে হবে।এই পরীক্ষা জেনারেল পরীক্ষা শেষ হবার ১০/১২ দিন পর হয়।সুতরাং নিজের বিষয় নিয়ে বিষয়ভিত্তিক পরীক্ষা নিয়ে এখন ভাবার দরকার নাই।জেনারেল পরীক্ষার পরের কয়দিন পড়লেই হয়ে যায়।
আর কোন ক্যাডার আগে চয়েজ দিবেন এটা নির্ভর করে কোন পদে যোগ দিলে আপনি খুশি থাকবেন তার উপর।আমি অনেককেই দেখেছি এডমিন ক্যাডারে একবছর চাকরি করে পরে আবার শিক্ষা ক্যাডারে ফিরে গেছেন।আবার অনেকেই শিক্ষা ক্যাডার বাদ দিয়ে অন্য ক্যাডারে চলে গেছেন।নির্ভর করে কেমন লাইফ আপনি লিড করতে চান তার উপর।

বিসিএস জিজ্ঞাসা-4
————————————-
আসন্ন বিসিএস’কে কেন্দ্র করে আপনাদের দেয়া প্রশ্নের ভিত্তিতে এই পর্বের উত্তর দিয়েছেন সম্মানীত সহকারি পুলিশ কমিশনার জনাব মান্না দে। উল্লেখ্য তিনি “বাংলাদেশ ক্যারিয়ার ক্লাব ” এর একজন সম্মানীত নীতি নির্ধারক।
>পুলিশ ক্যাডার আগে দিলে ভালো হবে নাকি প্রশাসন ক্যাডার?
– এ স্বপ্নের প্রথম ধাপ হলো ক্যাডার চয়েস। এখানে প্রার্থীরা ভুল করে সবচেয়ে বেশি । যার মাসুল দিতে হয় ভাইেভা তে গিয়ে। তাই প্রথম থেকে একটু বুঝে ক্যাডার চয়েস করতে হয়।
প্রথমে যে প্রশ্নটা সবাই করে আমি কোন ক্যাডার চয়েস দিবো?
এডমিন না পুলিশ?
আপনার পছন্দের চাকরি দরকার না শুধু চাকরি দরকার। যে কাজ করতে আপনার ভালো লাগবে , আপনি তাই দিবেন ।
প্রশ্ন হচ্ছে কোন ক্যাডারের কী কাজ , তা আপনাকে জানতে হবে। তাই আপনার যে ধরনের লাইফ পছন্দ সে ধরনের ক্যাডার দিবেন । কোন ক্যাডার কোনো ক্যাডারের চেয়ে কম না , বেশি না. কখন ও ই না ।
তো আপনার জীবন আপনার হাতে
কারন জবের সাথে আপনার জীবন সম্পূর্ণভাবে জড়িত।
কোন ক্যাডারের কী কাজ তা বিস্তারিত আলাপ করা সম্ভব নয়। তবে জেনে নিবেন। তাই ভেবে আপনার ক্যাডার চয়েস টা দিবেন।
এবার বলছি সাজাবেন কিভাবে???
কিছু ক্যাডার সবাই প্রথম দিকে রাখে।
ফরেন, পুলিশ, এডমিন।
তারপর ট্যাক্স, ইকোনোমিক, অডিট, শিক্ষা ।
আমি বলছি বেশিরভাগ তাদের চয়েস এভাবে দেয়।
তাই এখানে বুঝতে হবে…
আপনি শিক্ষা ক্যাডার এক নম্বর চয়েস দিচ্ছেন । তারপর ফরেন সহ অন্য ক্যাডার চয়েস দিলে তো হবে না্ । কারন আপনি পেলে শিক্ষা পাবেন। ওটা ক্রস করে আপনি পুলিশ, ফরেন পাওয়ার সম্ভবনা কম।
একই ভাবে আপনি পুলিশ দিলেন। ৬ বা ৭ নম্বরে ফরেন দিলেন। ৩ বা ৪ নম্বরে অন্য ক্যাডার। এ চয়েস টা ভালো হবে না।
আপনাকে বুঝতে হবে কত নম্বর পেলে কোন ক্যাডার আগে আসবে । সেভাবে সাজাবেন। তাহলে ভাইভা তে অহেতুক প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হবে না।
আবার বলছি আপনি যা হতে চান তাই প্রথম পছন্দ দিবেন বাকীটা ক্রমনাসারে সাজাবেন।
অনেকে সিট হিসবা করে ক্যাডার চয়েস দিয়ে থাকেন । এ কাজ ভুলে ও করবেন না। পরে ভাইভা বোর্ডে লজ্জা পাবেন।
>স্যার, আমার গ্রামের বাড়িতে আমি থাকিনা, কিন্তু আমার মা বাবা থাকেন? আমি থাকি শহরে। বর্তমান ঠিকানায় আমি গ্রামেরটা দিব নাকি শহরেরটা?
-আপনি আপনার স্থায়ী ঠিকানা অবশ্যই দিবেন। বাড়িতে কেউ থাকুক না থাকুক। আপনি আপনার স্থায়ী ঠিকানা অবশ্যই দিবেন। চাইলে বর্তমান ঠিকানা ও স্থায়ী ঠিকানায় দিতে পারেন্
>স্যার, আমার বাবার ন্যাশনাল আইডি কার্ডের ওনার নামের বানানের সাথে আমার ন্যাশানাল আইডি ওনার নামের বানানের পার্থক্য আছে। অর্থাৎ একটাতে Mohammad কিন্তু অন্যটাতে শুধু Md। এতে কি প্রবলেম হবে?
-যেহেতু আপনার ন্যশানাল আইডি কার্ডে নামের বানান প্রবলেম আছে , সেহেতু আপনি আপাতত আইডি কার্ডের নম্বর দিয়ে আবেদন করুন। পরে কারেকশন করিয়ে নিবেন।
>শারীরিক কী ধরনের অযোগ্যতা থাকলে পুলিশ ক্যাডার হওয়া যায় না?
– শুধু পুলিশ ও আনসার ক্যাডারের ক্ষেত্রে উচ্চতা টা দেখতে হবে। বাকী সব সিভিয়ার প্রবলেম না থাকলে সমস্যা নাই। এছাড়া সার্কুলারে নির্দিষ্ট উচ্চতার বিষয়ে স্পেসিফিক দেয়া আছে। সে মোতাবেক আপনার উচ্চতা থাকলেই হবে।
>স্যার, আমি স্নাতক সম্পন্ন করেছি। কিন্তু রেজাল্ট এখনো দেয়নি। আমি কি আবেদন করতে পারব?
– যারা স্নাতক বা সমমানের পরীক্ষা সমাপ্ত করেছেন। তারা আবেদন করতে পারবেন। রেজাল্ট না দিলে ই চলবে।
>প্রিলিতে কি কোটা পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়?
-প্রিলিতে কোটা থাকে না। ভাইভার পর ফাইনাল রেজাল্টে কোটা আরোপ করা হয় ।
>স্যার, প্রিলিতে কত পেলে পাশ করা যাবে?
-মজার প্রশ্ন :::
প্রিলি তে কতো নম্বর পেলে পাশ করবো? স্বয়ং পিএসসি ও জানে না। সময় বলে দিতে পারবে। আমার কাছে ১২৫ -১৩০ একদম সেফ নম্বর বলে মনে হয়। তবে সেটা মুলত প্রশ্নের উপর নির্ভর করে।
——————————

বিসিএস জিজ্ঞাসা-5
————————————
আসন্ন বিসিএস’কে কেন্দ্র করে আপনাদের প্রশ্নের উপর ভিত্তি করে সাজানো “বিসিএস জিজ্ঞাসা” র এই পর্বের উত্তর দিয়েছেন সম্মানীত এডিশনাল এসপি জনাব মাসরুফ হোসাইন। [আগামী পর্বের উত্তর দিবেন বাংলাদেশ ক্যারিয়ার ক্লাবের উপদেষ্টা ও বাংলাদেশ দুতাবাস ( এথেন্স) এর সম্মানীত ১ম সচিব জনাব সুজন দেবনাথ। ]
>(ক) স্যার, আমি থাকি ঢাকায়, বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা একই দিতে চাই। সমস্যা হবে?
-হ্যা সমস্যা হবে। স্থায়ী ঠিকানা পাসপোর্টে বা ন্যাশনাল আইডি কার্ডে যা ওটাই। বর্তমান ঠিকানা ( যেটার মালিক আপনারা না) সেটাকে স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে দেয়া যাবেনা। তবে চাইলে স্থায়ী ঠিকানাটা স্থায়ী ও বর্তমান উভয় ঠিকানা হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।
খ) ফৌজদারি মামলা আছে কিন্তু চার্জশিট হয়নি অথবা মামলা উঠিয়ে নিবে। অথবা আগে মামলা ছিলো পরে বাদি মামলা উঠিয়ে নিয়েছে। এতে ভেরিফিকেশনের সমস্যা হবে?
– হ্যা হবে। মামলার রায় হতে হবে। যদি রায়ে আপনি সাজাপ্রাপ্ত হোন তবে আপনি আবেদন করে পরীক্ষা দিয়ে কোয়ালিফাই হলেও পুলিশ ভেরিফিকেশনে বাদ পরবেন। তবে রায়ে যদি আপনি নির্দোষ প্রমাণিত হোন তবে আর কোনো সমস্যা নেই।
>আমার কোনো স্থায়ী ঠিকানা নেই। কিন্তু আমি সব জায়গায় আমি যে গ্রামে বড় হয়েছি সেটাকে স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে দেখায়। বর্তমানে শহরে ভাড়া বাসায় থাকি। এক্ষেত্রে আমি যদি ঐ গ্রামের বাড়িকে স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে দেখায় ( যেটি সত্যিকার অর্থে আমার স্থায়ী ঠিকানা না, তবে একসময় সেখানে থাকতাম) তবে পুলিশ ভেরিফিকেশনে আমার সমস্যা হবে কি না?
– গ্রামের বাড়িই স্থায়ী ঠিকানা। ভেরিফিকেশনের সময় ওখানে কাউকে থাকতে হবে, যে বলবে যে এটা আপনার স্থায়ী ঠিকানা।
>আমি কালার ব্লাইন্ড। পুলিশ ক্যাডার হতে এটা আমার জন্য বাধা হবে কি?
– কালার ব্লাইন্ড হলে পুলিশ হতে পারবেন না।
>নমস্কার দাদা, আমার বাবার নামে একটা মামলা চলমান, এটা কি আমার সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে কোনো সমস্যা হবে?
-না। এটা কোনো সমস্যার সৃষ্টি করবে না।
>বিসিএস দিয়ে পুলিশে জয়েন করলে সুবিধা বেশি নাকি ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে জয়েন করলে সুবিধা বেশি। আমি নারী প্রার্থী।
-এটা আপেক্ষিক প্রশ্ন, কোন একমাত্র সঠিক উত্তর নেই। ব্যক্তিগত পছন্দের উপর নির্ভর করে
>কোন ক্যাডার চয়েজে রাখলে আমি নিজ জেলায় পোস্টিং পাব?
– মেডিকেল।
>দাদা নমস্কার, বিসিএসে প্রিলি, রিটেন কোয়ালিফাই হলেও ভাইভাতে নাকি লবিং লাগে। এটা কি সত্যি?
– এসব অপ্রোয়জনীয় চিন্তা না করে পড়াশোনা করুন
>স্যার, আমি একজন প্রতিবন্ধি। আমি কি বিসিএস দিয়ে প্রতিবন্ধি কোটায় পুলিশ বা ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে নিয়োগ পাব?
– পুলিশে পারবেন না।
>ঢাকায় আমরা একটা ফ্ল্যাটে থাকি। আমি এটাকেই স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে দিতে চাই। কিন্তু বিল্ডিং এর অন্যান্য ফ্ল্যাটগুলোর মালিক অন্যরা। আমি কি এটাকে স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে ব্যবহার করলে ঝামেলায় পড়ব?
– সার্টিফিকেটে যেটা স্থায়ী ঠিকানা ওটাই দিতে হবে।

বিসিএস জিজ্ঞাসা-6
————————————
এটি একটি বিশেষ পর্ব। কারণ এই পর্বে আপনাদের প্রশ্নের আলোকে সরাসরি উত্তর দিয়েছেন দুইজন লিজেন্ড বিসিএস ক্যাডার অফিসারঃ জনাব সুজন দেবনাথ ( ১ম সচিব, বাংলাদেশ দুতাবাস, এথেন্স) ও জনাব মাসরুফ হোসাইন ( এডিশনাল এসপি, বাংলাদেশ পুলিশ)
★আপনাদের একটা প্রশ্ন ছিল, সিভিল সার্ভিসের মেডিকেল টেস্ট কেমন হয়? পুলিশের মেডিকেল টেস্ট কি আর্মির মত হয়? এই মেডিকেল টেস্টে কি বাদ পড়ার সম্ভাবনা থাকে?
এই প্রশ্নটির সরাসরি উত্তর দিয়েছেন স্বয়ং পুলিশ কর্মকর্তা জনাব মাসরুফ হোসাইন নিজে। তাঁর মতে-
সিভিল সার্ভিসের মেডিকেল টেস্ট একেবারেই সাধারণ এবং বেসিক হয়,যে কোন সরকারী হাসপাতালে গিয়ে ডাক্তারকে জিজ্ঞাসা করলেই জানতে পারবেন।আপনার যদি অতি গুরুতর কোন সমস্যা না থাকে, সেক্ষেত্রে বাদ পড়ার সম্ভাবনা নেই। পুলিশের মেডিকেল টেস্ট বাকি সব ক্যাডারদের মতই হয়, আলাদা না। শুধুমাত্র উচ্চতা আর ওজনে পার্থক্য আছে কিছুটা, যেটা আপনাদের সুবিধার্থে নীচের ছবিতে দিয়ে দিলামঃ পুলিশের ক্ষেত্রে চোখের নিয়ম হচ্ছে, আপনার চোখ যাই হোক না কেন, যদি চশমা পরার পর সেটা ৬/৬ হয়, তাহলে কোন সমস্যা নেই।

★ নতুনদের জন্য একটা গুরুত্ত্বপুর্ণ কমন প্রশ্ন, কতগুলো ক্যাডার চয়েস দেব?
এ প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে জনাব সুজন দেবনাথ বলেন-
“আমার অভিমত হল – যেই চাকরিগুলো হলে আপনি অবশ্যই করবেন, শুধু সেগুলোই চয়েস দিন। এক্ষেত্রে ২টা ইস্যু। (১) যারা বিসিএসে যে কোন ক্যাডার হলেই চাকরি করবেন, তাঁরা সার্কুলার দেখে যেগুলোতে এপ্লাই করতে পারবেন, সবগুলো চয়েস দিয়ে দিন। (২) আর যারা মনে করেন – কয়েকটা ক্যাডার না হলে আসলেই চাকরি করবেন না, তাঁরা প্লিস অন্য ক্যাডার চয়েস দিয়েন না। চাকরি হল আর আপনি জয়েন করলেন না বা কিছুদিন পরে ছেড়ে দিলেন, সেটা সবার জন্য খারাপ। দেশের জন্যও খারাপ।
তখন আমার ২৮–তম এর ফাইনাল রেজাল্ট ও মেডিকেল হয়ে গেছে। কিন্তু গেজেট তখনও হয়নি। সেই সময় ২৯–তম বিসিএসের ভাইভা শুরু হয়ে গেল। এখন ২৮ আর ২৯ দুটোতেই আমার ফার্স্ট চয়েস ফরেন। আমি ২৯–তমের ভাইভা দিতেই গেলাম না। ভাবলাম – একটা পোস্ট নষ্ট করব কেন। আমার পরিচিত বেশ কয়েকজনকে দেখলাম – ২৮তমে ফার্স্ট চয়েস পেয়েও আবার ২৯–এ ভাইভা দিলেন। বললেন, তখনও গেজেট হয়নি। কী হয় কিছু বলা যায় না। রিস্ক তো আছেই। যাই হোক, তাঁরা বেশি সতর্কতামূলকভাবে এটা করেছেন। ব্যক্তিগতভাবে এটা দোষের নয়। আইনসিদ্ধও বটে। কিন্তু যেটা হয়েছে, অনেকেই ২বার চাকরি পেয়েছে। আর দ্বিতীয়বার জয়েন করেনি। সে পোস্টগুলো ফাঁকা গেছে। কিছু নাকি কোটা থেকে পুরণ করেছে। এতে সরকারের প্রয়োজন থাকা সত্ত্বেও অনেক পোস্ট খালিই থেকেছে। আর কিছু যোগ্য লোক চাকরি পায়নি। হয়তো তাঁদের বয়স চলে গেছে। তাই আপনি যে চাকরিটা পেলে আসলেই করবেন, শুধু সেটাই চয়েস দিন। তবে যারা ক্যাডার চেঞ্জ করতে আবার পরীক্ষা দিচ্ছেন, তাঁদের জন্য ঠিকই আছে”।
★ এছাড়া অনেকেই জানতে চেয়েছেন- সার্কুলারে কোন একটা ক্যাডারে অল্প ক’টা পোস্ট আছে। তো সেটা কি চয়েসে দিব?
এ প্রশ্নের উত্তরে জনাব সসুজন দেবনাথ বলেনঃ
“আমার ২৮–তম বিসিএস–এর চয়েস নির্ধারণ করতে গিয়ে দেখি অডিটে মাত্র ২/৩ পোস্ট। তো বন্ধু বলল, এটা চয়েসেই দিবে না। কোটা বাদ দিলে ১/২ পোস্ট – সেটা চয়েসে দিয়ে কী হবে? এটা একেবারেই ভুল কথা। পোস্ট বেশি থাক আর কম থাক নিজে যেই চাকরিটা আগে করতে চান সেভাবেই চয়েস দিন। আর পোস্ট পরবর্তীতে বাড়াতে বা কমাতে পারে। সাধারণত কমায় না। কখনও কখনও বাড়ায়। তাই যেসব ক্যাডারের সার্কুলার হয়েছে, সেগুলোতে আপনার পছন্দমত সিরিয়ালে চয়েস দিয়ে দিন।“
★ যাঁরা কোচিং করতে পারেন না তারা ভাবেন, বিসিএস তার জন্য না। এ ব্যাপারে জনাব সুজন দেবনাথ বলেনঃ
“প্রথমেই বলি আমি প্রিলি, রিটেন বা ভাইভা কোন কিছুর জন্যই কোচিং করি নাই, তবে বন্ধুদের কাছ থেকে কিছু কোচিং টাইপের ম্যাটেরিয়াল জোগাড় করেছিলাম। যদিও পরে একাধিক কোচিং দীর্ঘদিন ধরে আমার নাম ও ছবি তাঁদের প্রোসপেকটাসে দিয়ে গেছে, কেন দিচ্ছে জানতে চাইলে মাপ চেয়েছে কিন্তু পরের বছর আবার দিয়েছে। যাই হোক – আপনাকে আগের প্রশ্ন এবং সিলেবাস দেখে প্রিপারেশান নিতে হবে। তাতে আপনি কোচিং করুন আর নাই করুন। কোচিংয়ে কিছু রেডীমেইড জিনিস (লেকচার শিট টাইপের) দেয়া হয় আর পরীক্ষা বা মডেল টেস্ট নেয়া হয়। এ দুটো জিনিস কিছুটা হলেও আপনাকে সাহায্য করবে। আর পড়ানো বা শেখানো সেটা পাওয়া যায় খুব সামান্য। প্রতিটা কোচিংয়েই দু’একজন ভাল শিক্ষক আছে যাদের ক্লাশে আপনি কিছু পাবেন আর বাকি ক্লাশগুলো থেকে কিছুই শেখার নেই। বিশেষজ্ঞ ভাব নিয়ে মার্কেটিং চাপাবাজি চলে। . এখন আসি আপনি ডিসিশান পয়েন্টে আসবেন কিভাবে? আমি আগেই বলেছি দুটা লাভ – ১.ম্যাটেরিয়াল, ২. মডেল টেস্ট। এখন দেখুন আপনি এ দুটো জিনিস নিজে নিজে করতে পারবেন কিনা। পারলে কোচিংয়ের দরকার নেই। আর না পারলে কোচিং করুন। ম্যাটেরিয়াল এখন বাজারে, ইন্টারনেটে বিভিন্ন শর্ট টেকনিক সবই পাওয়া যায়, এগুলো জোগাড় করুন। এরপর দেখুন, আপনি নিজে নিজে পড়ার জন্য সময় দিতে পারছেন কিনা। বন্ধুদের সাথে গ্রুপেও পড়তে পারেন। সাথে মডেল টেস্টের গাইড ও কারেন্ট এফেয়ার্স থেকে মডেল টেস্ট দিন। এগুলো যদি নিজে নিজে করতে পারেন, তাহলে কোচিংয়ের দরকার নেই। আর সময় দিতে ইচ্ছা না করলে কোচিং করুন। কোচিংয়ে যেহেতু পয়সা দিবেন, তাই একটা মানসিক চাহিদা থাকবে আর পরীক্ষার পরিবেশ মিলে কিছু সময় প্রিপারেশানের জন্যই ব্যয় হবে। এতে কিছুটা লাভ হবে। . তবে কোচিংয়ে ভর্তি হয়েই যদি ভাবেন, আপনার কাজ গেছে, তাহলেই ধরা। ভোকাবিউলারি, গ্রামার আর ম্যাথ এগুলো ধরে ধরে পড়ানোর মত লোকজন কোন কোচিংয়ে নেই। আর প্রিপারেশনের সমস্যা এগুলোতেই। বাকিগুলো সময় দিলে হয়েই যাবে কিন্তু এগুলোর জন্য নিজের ডিটারমিনেশান এবং অনেক ক্ষেত্রে কারো হেল্প লাগবে। তো আমার পরামর্শ হচ্ছে, সমস্যা চিহ্নিত করে কিভাবে সেটা সলভ করবেন, না পারলে কার সাহায্য নিবেন সেটা খুঁজে করুন। কোচিং করুন আর নাই করুন, এটা আপনাকে করতেই হবে। যে গ্রামারটা আপনি বুঝছেন না সেটা কোন বইতে কোথায় নিয়ম ও উদাহরণ দিয়ে আছে, আর নিয়মটা আপনি বুঝতে পারছেন কিনা সেটা জানতে হবে। কোন ম্যাথে প্রোবলেম হলে সেটা কার থেকে জেনে নিবেন সেটা ভাবুন। ভোকাবিউলারি শিখতে ও মনে রাখতে উপায় জানুন। আর বাকিগুলো গাইড থেকে,বই থেকে বা কোচিংয়ে সব জায়গায়ই পাবেন।“
আমার কথাঃ আমি কোচিং করেছিলাম, তবে প্রিলি ছাড়া বাকিগুলোতে খুব একটা লাভ হয়নি। কোচিং সেন্টারগুলো ভুলভাল কথা বলে আপনার আত্মবিশ্বাস-এর বারোটা বাজাতে ওস্তাদ, যাতে আপনি ওদের উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েন।কোচিং করতে গেলে ওদের চাপাবাজিতে বিভ্রান্ত হবেন না।
★ অদ্ভুত একটা কমন প্রশ্ন অনেকেই করেন; ভাইয়া, পড়াশোনা করতে ইচ্ছা করেনা। একটানা পড়তেও পারিনা। কি করব?
এই টেকনিক্যাল প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন জনাব মাসরুফ হোসাইন। তিনি বলেন-
গুগলে গিয়ে Pomodoro Technique লিখে সার্চ দিন, ভালভাবে শিখুন এটা, পড়তে গিয়ে কাজে লাগান। সংক্ষেপে বলতে গেলে, একটানা ২৫ মিনিটের বেশি কোন বিষয় পড়বেন না।২৫ মিনিট যে কোন বিষয়ে দুনিয়াদারি ভুলে গিয়ে পড়ুন, ঠিক ২৫ মিনিট পর ৫ মিনিট ব্রেক নিন, তারপর আবার ২৫ মিনিট পড়ুন। POMOTODO নামে একটা এ্যাপ আছে, এটা নামিয়ে নিয়ে কাজে লাগাতে পারেন। আমি নিজে এটা ব্যবহার করে প্রোডাক্টিভিটি বহুগুণ বাড়িয়ে ফেলেছি।বহু পিএইচডি স্টুডেন্ট এটা ব্যবহার করে সারাবিশ্বজুড়ে।বিসিএস পরীক্ষার সময় এটা আমার জানা থাকলে আমার রেজাল্ট আরো ভালো হত।

বিসিএস জিজ্ঞাসা-7
————————————
আসন্ন বিসিএস কে সামনে রেখে সারাদেশের ক্যান্ডিডেটের নানামুখি প্রশ্নের আলোকে আমরা সাজিয়েছি বিভিন্ন পর্ব। এই পর্বের উত্তর দিয়েছেন সম্মানিত সহকারি পুলিশ কমিশনার জনাব মান্না দে। নতুন কোনো প্রশ্ন থাকলে তা আমাদের জানান। আগামী পর্বের জন্য অপেক্ষা করুন।
১। স্যার, ভ্রাম্যমাণ আদালত কতৃর্ক কেউ যদি সাজাপ্রাপ্ত আসামী হয় এবং কিছুদিন জেল খাটার পর নির্দোষ প্রামাণিত হয় তবে কি
তার বিসিএস কিংবা অন্যকোনো সরকারি চাকুরি হবার ক্ষেত্রে কোনো সমস্যা হবে?? নাকি হবেনা,নাকি ঝামেলা হবে অনেক??
সদুত্তর আশা করছি।
অপরাধে সাজা প্রাপ্ত::
যদি কোন প্রার্থী কোন অপরাধে সাজা প্রাপ্ত হন তবে তার ক্ষেত্রে জটিলতা থাকবে। কিন্তু কোর্ট থেকে নির্দোশ প্রমাণিত হন তবে সেক্ষেত্রে কোন সমস্যা নাই। থানায় অভিযোগ কিংবা জিডি তে উল্লেখ থাকলে বিবেচনাযোগ্য। গুরতর ফৌজদারি অপরাধের শাস্তি প্রাপ্ত হলে আবেদন করা যাবে না। মোবাইল কোর্ট মাইনর শাস্তি খুব একটা উল্লেখযোগ্য নয়।
২।
“আমি ইন্ডিয়া থেকে ৩ বছর মেয়াদী BBA কোর্স করেছি স্কলারশিপ এ। UGC থেকে সমমান এর সার্টিফিকেট ও নিয়েছি যদিও ওরা CGPA কিছু দেয় নি। ইন্ডিয়ান গ্রেড অনুযায়ী আমার গ্রেড ৬৫% ।
এখন আমি ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি তে MBA করছি।
আমার প্ৰশ্ন হলো।
ক. আমি কি MBA করার পরে BCS দিতে পারবো? এক্ষেত্রে আমি কতো বছর মেয়াদী MBA করলাম বা কতো গুলো সাবজেক্ট পড়ে mba পাস করলাম এমন কিছু বাদ্ধবাধকতা আছে কি না( আমার mba তে ১৩ টা সাবজেক্ট এবং ১.৫ বছর লাগবে)?
খ. আমাকে UGC থেকে ম্যানেজমেন্ট এ ৩ বছর মেয়াদি অনার্স এর সমমান দিয়েছে বাংলাদেশ এর কিন্তু ওরা কোনো পয়েন্ট দেয় নি। আমার CGPA সমমান করতে কোথায় যেতে হবে বা কি করতে হবে? ইন্ডিয়ান স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী আমার ফার্স্ট ক্লাস হয়েছে ৬৫% মার্কস।
আমি সত্যি অনেক অনেক কৃতজ্ঞ থাকবো আপনি সময় করে উত্তর গুলো দিলে।
★বিদেশী বিশ্ববিদ্যালয় ::
এক্ষেত্রে একমাত্র সমাধান ইউজিসি । তারা ই আপনার জিপিএ এডজাস্ট করবেন।
[ এ প্রসঙ্গে এডিশনাল এসপি মাসরুফ হোসাইন জানান- যারা বিদেশে পড়াশুনা করেছেন, তাদের সেই ডিগ্রি যে এদেশের ৪ বছর মেয়াদি অনার্স সমমান ডিগ্রি তা শিক্ষা মন্ত্রনালয় থেকে সার্টিফিকেট নিতে হবে]
৪।Some inquiries for self-analysis about FOREIGN CADER choose:
a) How should be the family background?
[ বি.দ্র: শুনেছি যে এ cader এ মধ্যবিত্ত বা তার চেয়ে হত দরিদ্র পরিবারের সন্তানেরা কখনই cader হয়নি….]
b) How should be the education background?
i.e » Educational institutions?
» Educational subject?
[ বি.দ্র: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়া কি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় বা অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কখনও কোনও পররাষ্ট্র ক্যাডার কেউ কি হয়েছে?
শুনেছি যে কমার্স background এর ছাত্রছাত্রীদের সুযোগ নাই ইই….]
c) How should be communication knowledge?
[ বি.দ্র: high/understanding? মানে খুব ভালো English communication না থাকলে কি হবে না? যদি কিনা English communication টা understanding হয়?]
d) How should be the general knowledge?
[ বি.দ্র: সায়েন্স এর ছাত্রছাত্রীদের সুযোগ কেমন? আর স্বাভাবিক ভাবেই তারা এই বিষয়ে একটু দুর্বল থাকে, এই দুর্বলতা কি ৬/৭ মাসে কাটিয়ে নেওয়া সম্ভব কি?]
★ফরেন ক্যাডার::
এই একটা ক্যাডার নিয়ে হাজারো প্রশ্ন। আপনি যদি মনে করেন আপনি বাংলাদেশ কে বিশ্বের কাছে উপস্থাপন করতে পারবেন আপনি ক্যাডার চয়েস দিতে পারেন। এটা কোন কঠিন বিষয় না। এক্ষেত্রে শুধু একটাই কথা। এ ক্যাডার চয়েস দিলে শুরুতে দেয়া ভালো। একজন জানতে চেয়েছেন ফরেন ক্যাডারে নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তানরা আসতে পারেন কিনা। এটা অদ্ভুত চিন্তা । সব ক্যাডারে ই আপনি বা আমি যেতে পারি।
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান::
আমি জানি না কেন আপনারা আপনাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নিয়ে ভাবছেন। আপনি যে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে পড়ালেখা করতে পারেন । এটা কোন বিষয় ই না। কোন সাবজেক্ট থেকে পড়ছেন সেটা মাঝে মাঝে কিছু গুরত্ব রাখে। কিন্তু মেধার মূল্যায়ন করার জন্য ই তো ভাইভা নেয়া হবে। আপনার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দেখার জন্য না। একটা কথা বলি…. আপনি শুধু পড়ুন। নিজেকে তৈরি করুন। বাকীটা সময় হলে দেখা যাবে। আপনি যদি হাজারটা কারন খুজে বের করেন আপনার বিসিএস জব না হবার। তবে মনে রাখবেন । বিসিএস জব না হবার পিছনে সবচেয়ে বড় কারন আপনি আর আপনার অজুহাত। এই অজুহাত গুলো আপনাকে অলস ও অন্যমনস্ক করে দিচ্ছে । আমি দেখেছি অনেক হতাশাবাদী কে। যারা বিসিএস পরীক্ষার আগে ও অনেক কারন খুজে বের করতো বিসিএস না হওয়ার কারন হিসাবে এবং যখন সত্যি হলো না বা পছন্দের ক্যাডার হলো না তখনও অনেক কারন খুজে বের করছে। কারন খুজা বাদ দিন।
বিজ্ঞাণ , মানবিক , ব্যবসা
কে কোন ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে আসছেন সেটা বিসিএস এ একটা ব্যাপার। কারন আপনার প্রস্তুতির ক্ষেত্রে কাজে দিবে। কিন্তু আপনি যা পড়ে আসেন না আপনাকে সব জানতে হবে। আগ্রহ টা ই আসল ব্যাপার । বাকীটা সময়ের ব্যাপার মাত্র।

বিসিএস জিজ্ঞাসা-8
————————————
আসন্ন  বিসিএস কে সামনে রেখে ক্যান্ডিডেটদের প্রশ্নের ভিত্তিতেই বিসিএস এর নানা দিক নিয়ে উত্তর দিচ্ছেন সম্মানীত বিসিএস ক্যাডার ও ক্যারিয়ার এক্সপার্টরা। এই পর্বের উত্তর দিয়েছেন সম্মানীত সহকারি কর কমিশনার জনাব মওদুদ আহম্মদ ভুঁইয়া। উল্লেখ্য তাঁর সঠিক দিক নির্দেশনা ও মানসম্মত সেমিনার অনেক ক্যারিয়ার প্রত্যাশীদের কাছে আজ আলোর পথ দেখাচ্ছে।
১। প্রশাসন,পুলিশ,শিক্ষা,আনসার,.. কয়টা চয়েস দিতে পারব? শিক্ষা ক্যাডার ইচ্ছা মত নাকি শেষে দিতে হবে?
>
-একটা চাকুরী পাওয়াই যদি মূল কথা হয়, তাহলে যে কয়টা অপশন থাকবে সবগুলোই দিবেন, সমস্যা নেই।
-আপনি কোন ক্যাডার পেতে ইচ্ছুক পছন্দটা ঠিক তার উপর নির্ভর করবে, সেইভাবে পছন্দক্রম সাজাতে হবে। তবে শিক্ষা শেষে দিলেই যে কেউ শিক্ষা ক্যাডার পাবে না, এমন কোনো কথা নেই, কারণ শিক্ষায় প্রতিদ্বন্দ্বীতা করতে হয় শুধু সংশ্লিষ্ট বিষয়ের প্রার্থীদের সাথে।
২। স্যার, বোথ ক্যাডারের কোনো অসুবিধা আছে কি না? ম্যাক্সিমাম কয়টা চয়েজ দিতে পারব।
>কোন অসুবিধা নেই। বরং বোথ চয়েজ দিলে অপশন বেশি পাওয়া যায়। জেনারেল এবং টেকনিক্যাল দুই সাইডেই সম্ভাবনা থাকে, ভাইবা বোর্ডে ইতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে। তবে, ১১০০ নাম্বারের রিটেন অর্থাৎ অতিরিক্ত ২০০ নাম্বার বেশি পরীক্ষা দিতে হবে।
৩। স্যার,সামনের মাসে আমার শেষ বর্ষের পরীক্ষা হয়ত ৪ মাসের মধ্যে সার্টিফিকেট পাব। আমি কি বিসিএস আবেদন করতে পারবো?
> আবেদন করার সময় সার্টিফিকেট লাগবেনা, শুধু শেষ বর্ষের সব পরীক্ষা(মৌখিক সহ) শেষ হলেই চলবে।
সার্টিফিকেট প্রিলি. পাশ করার পরে লাগবে।
৪। পুলিশ বা ম্যাজিস্ট্রেট কোনটার জন্য মার্কস বেশি লাগে?
> যেটাতে প্রার্থী বেশি থাকবে, সেটাতে মার্কস বেশি লাগবে। প্রার্থী সংখ্যা এবং আসন সংখ্যা এই দুইয়ের উপর নির্ভর করবে মার্কস।
৫। স্যার, প্রতিবন্ধি কোটা কি সব ক্যাডারের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য? আমার ক্রিটিক্যাল চোখের সমস্যা। আমি কি এডমিন ফার্স্ট চয়েজ দিতে পারব?
>আপনার চোখের সমস্যাটা কি ধরনের, তা না জেনে উত্তর দেয়া মুশকিল। তবে পুলিশ, আনসার ব্যতীত অন্যান্য সব ক্যাডারেই প্রতিবন্ধী প্রার্থীরা আবেদন করতে পারে।
৬। এবার প্রিলি. বাংলা ও ইংরেজীতে হবে। প্রিলি. বাংলায় দিয়ে লিখিতের বাংলাদেশ ও আন্তজারতিক বিষয়াবলী কি ইংরেজীতে দেয়া যাবে ?
>
-প্রিলির উত্তরপত্রে গোল্লা ভরাট করবেন, সুতরাং গোল্লা বংলায় বা ইংলিশ যেকোনো ভাবেই ভরাট করতে পারবেন….. হা হা হা।
-অবশ্যই দেওয়া যাবে, এটা প্রার্থীর ইচ্ছার উপর নির্ভর করে। এ বিষয়ে কোনো বাধ্যবাধকতা নেই।
৭। জাতীয় পরিচয় পত্রে দেয়া Signature আর সচরাচর আবেদন পত্রে ব্যবহৃত Signature এর মধ্যে পার্থক্য থাকলে কি কোন সমস্যা হবে?
> কোন সমস্যা হবে না। আমারটাও মিল নেই।
৮। দাদা, আমার ন্যাশনাল আইডি কার্ডে যে এড্রেস সেই এড্রেসে এখন আমরা থাকিনা। তাহলে আমি স্থায়ী ঠিকানা কিভাবে দিব?
> স্থায়ী ঠিকানা বলতে পৈত্রিক ভিটার ঠিকানাকে বুঝায়। সেখানে বর্তমানে বসবাস না করলেও সমস্যা নেই।
৯। মার্কেটিং এর স্টুডেন্টরা কোন কোন ক্যাডারে ভালো করতে পারবে?
> যেকোনো ক্যাডারেই ভালো করার সুযোগ আছে।
চাকুরী হওয়ার পর ট্রেনিং টা ভালোভাবে করলে হবে।
১০। আমি ফার্স্ট চয়েজ এডমিন ও সেকেন্ড চয়েজ ফরেন ক্যাডার দিতে চাই। সেক্ষেত্রে আমি যদি ফার্স্ট চয়েজে কোয়ালিফাই না হই, তবে আমি কি সেকেন্ড চয়েজ অর্থাৎ ফরেন ক্যাডার পাব?
>ফরেন ক্যাডারে সীমিত আসন এবং অতি চাহিদার কারনে প্রতিযোগিতা অন্যান্য যেকোনো ক্যাডারের তুলনায় বেশি হয়, সে ক্ষেত্রে এডমিন না পেলে ফরেন পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই অল্প। ফরেন দিলে প্রথমে দেওয়াই যৌক্তিক।
১১। স্যার, যদি কেউ বিসিএস মেরিট লিস্টে কোয়ালিফাই হয়, তাহলে সে কি তিনি যে কয়টি চয়েজ দিয়েছেন সেখান থেকে নিজ ইচ্ছেমত যেকোনো একটা বাছাই করে নিতে পারবে?
>প্রিলির ফর্ম পূরণ করার পর, পছন্দ পরিবর্তন করার আর কোন সুযোগ নেই। চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশের সময় আপনার প্রাপ্ত নাম্বার এবং পছন্দ অনুযায়ী, পিএসসি ই ক্যাডার নির্ধারণ করে দিবে।
১২। আমার ন্যাশনাল আইডি কার্ড চেঞ্জ করে ঠিকানা পরিবর্তন করেছি, কিন্তু এখনো নতুন কার্ড পাইনি। তবে অনলাইনে সার্চ করলে পাওয়া যাবে। এটা নিয়ে কি আমি কোনো সমস্যায় পড়ব?
>সমস্যা হবেনা, পরিবর্তিত ঠিকানা ব্যবহার করেন। যতদ্রুত সম্ভব নতুন কার্ড সংগ্রহ করে নিন।
১৩। স্থায়ী ঠিকানার সাথে যদি আইডি কার্ডের ঠিকানার কোনো মিল না থাকে তবে কোনো সমস্যা হবে কি না?
>স্থায়ী ঠিকানা বলতে পৈতৃক নিবাসকে বুঝায়, সেটা ভোটার আইডির সাথে মিল না থাকলেও সমস্যা নেই।
সেটা আপনার স্থায়ী ঠিকানা ঔটাই দিবেন, আর আইডি কার্ডের ঠিকানাটা বর্তমান ঠিকানা হিসেবে ব্যবহার করবেন।
১৪। আমার বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা ঢাকার একটা ফ্ল্যাটের ঠিকানা। পুরো বিল্ডিং এর শুধু ফার্স্ট ফ্লোর আমাদের বাকি ফ্লোর অন্য কারো। এতে আমার পুলিশ ভেরিফিকেশনে সমস্যা হবে কি?
> না কোন সমস্যা হবেনা, বরং আরো ভালোই হল।
ভেরিফিকেশনের সময় সংশ্লিষ্ট থানায় যোগাযোগ রাখবেন।
১৫। আমি পুলিশ ক্যাডার হতে চাই, ফরেন কিংবা এডমিন হলেও খারাপ হয় না, আবার নিজের (বি এল কলেজের মার্কেটিং ডিপার্টমেন্টের প্রভাষক হয়ে ফিরার ইচ্ছাও আছে)। আমার ক্যাডার চয়েজটা কেমন হবে সেটা বুঝতে পারছি না।
>যে ক্যাডারে কাজ করার সবচেয়ে বেশি ইচ্ছা সেটা প্রথমে দিন, এভাবে পর্যায়ক্রমে দিবেন। তবে ফরেন ক্যাডারের যেহেতু ডিমান্ড বেশি এবং সিট কম সেহেতু এক-দুইয়ের পরে দিলে পাওয়ার সম্ভাবনা অতি ক্ষীণ।

***এই ধরনের আরও টিপস-ট্রিকস, অফার এবং শিক্ষামূলক পোস্ট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন***

——————————
ধন্যবাদ সবাইকে। আপনাদের নতুন প্রশ্ন থাকলে জানান। আমাদের বাকি পর্বগুলোও প্রকাশ করব আপনাদের প্রশ্নের ভিত্তিতে। উত্তর দিবেন উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তা (বিসিএস ক্যাডার) ও অন্যান্য ক্যারিয়ার এক্সপার্টরা। প্রয়োজনে আপনার বিসিএস ক্যান্ডিডেট বন্ধুকে ম্যানশান করুন।
***এই পেজটি প্রতিদিন আপডেট করা হবে, শেয়ার করে রাখুন, আমাদের সাথেই থাকুন, ধন্যবাদ।

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ

You must be logged in to post a comment Login

নতুন পোস্ট’সমূহ

To Top