স্বাস্থ্য কথা

হেঁচকি বন্ধ করার কিছু কৌশল

হেঁচকি খুবই সাধারণ একটি সমস্যা। ঠিক কী কারণে হেঁচকি আসে তার সঠিক কারণ এখনও নির্ণয় করা যায়নি। মনে করা হয় যে, আমাদের বুক ও পেটের মাঝখানে ডায়াফ্রাম নামে যে পর্দা থাকে, এই ডায়াফ্রাম এর আকস্মিক সংকোচনের ফলে হেঁচকি শুরু হয়। জনসম্মুখে যখন হেঁচকি আসে তখন বিব্রতকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। তাই আসুন খুব দ্রুত হেঁচকি বন্ধ করার কিছু কৌশল জেনে নিই।

১। কিছুক্ষণ মুখ হাঁ করে রাখুন
যখন হেঁচকি শুরু হবে তখন মুখ হাঁ করে রাখুন কয়েক মিনিটের জন্য। ঢোক গেলার প্রয়োজন হলে ঢোক গিলুন তবে ঠোট ফাঁকা রাখার চেষ্টা করুন।…
এভাবে করলে ৩ মিনিটের মধ্যে হেঁচকি ভালো হয়ে যাবে।

২। পানি পান করুন কান বন্ধ রেখে
৯/১০ চুমুক পানি পান করুন এবং আপনার কান দুটি বন্ধ রাখুন। এর জন্য আপনি স্ট্র দিয়ে পানি পান করুন ও দুই হাতের দুই আঙ্গুল দিয়ে কান বন্ধ করে রাখুন।

৩। জিহ্বা টেনে বার করুন
ধীরে ধীরে শ্বাস নিন ও নিঃশ্বাস ছাড়ুন। নিঃশ্বাস ছাড়ার সময় যত বেশি সম্ভব বাতাস বের করে দিন।তারপর গভীরভাবে শ্বাস নিন এবং আপনার জিহ্বাটি বের করুন।৪০ সেকেন্ডের জন্য দম বন্ধ রাখুন ও কান দুটিও বন্ধ রাখুন। তারপর আস্তে আস্তে নিসঃশ্বাস ছাড়ুন। যদি একবারে ভালো না হয় তাহলে পরপর ৩ বার এভাবে করুন।

৪। পলিথিনের ব্যাগে দম নিন
বিশেষজ্ঞদের মতে মুখের কাছে একটি পলিথিনের ব্যাগ নিয়ে এর মধ্যে শ্বাস নিয়ে নিঃশ্বাস ছাড়লে রক্তে কার্বনডাইঅক্সাইড এর ভারসাম্য ফিরে আসে ফলে হেঁচকি বন্ধ হয়।

৫। কান বন্ধ রাখুন
গভীরভাবে দম নিয়ে দুই কানের ছিদ্রের মধ্যে দুই আঙ্গুল দিয়ে কান দুটি বন্ধ করে রাখুন এবং ২০-৩০ সেকেন্ডের জন্য দম বন্ধ রাখুন । এর ফলে ডায়াফ্রামের সাথে সংযুক্ত ভেগাস স্নায়ু কে রিলেক্স হওয়ার জন্য বার্তা যায় । ফলে হেঁচকি আসা বন্ধ হয়।

শিশুদের হেঁচকির জন্য সাধারণত কিছু করতে হয় না। তবে একটানা এক ঘণ্টার বেশি সময় ধরে হেঁচকি উঠতে থাকলে ১ চামচ শরবত বা পানি পান করাতে হবে। কিছু কিছু লোক যখন ঘাবড়ে যায় তখন হেঁচকি হয়। তারপর স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে এলেই, হিঁচকি দূর হয়ে যায়। এদের জন্য অস্বস্তিকর অবস্থায় পড়ার সময় এক টুকরো মিছরি বা চুয়িংগাম মুখে নিয়ে চিবোতে থাকতে হবে। যতক্ষণ দুশ্চিন্তা বা ঘাবড়ানোর কারণটি দূর না হচ্ছে।

খুব বেশি খেয়ে ফেললে, অনেক বেশি পান করলে, গরম ও মসলাদার খাবার খেলে, খুব বেশি হাসলে বা কাঁদলে, গরম খাবারের সাথে ঠাণ্ডা পানি পান করলে, তাড়াতাড়ি খেলে হেঁচকি আসতে পারে। খাবার সব সময় আস্তে আস্তে ও ভালোভাবে চিবিয়ে খাওয়া ভালো। পিঠে জোরে চাপ দিলে,ভয় পেলে এবং হঠাৎ খুব অবাক হলে ও হেঁচকি বন্ধ হয়ে যায়।

***এই ধরনের আরও টিপস-ট্রিকস, অফার এবং শিক্ষামূলক পোস্ট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন***

হেঁচকি উঠলে ১ চামচ চিনি বা মধু বা লবণ জিহ্বার নিচে রাখুন হেঁচকি বন্ধ হবে। এক টুকরা লেবু চুষে খান অথবা ১ চামচ ভিনেগার খেলে দ্রুত হেঁচকি ভালো হয়।

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ

You must be logged in to post a comment Login

নতুন পোস্ট’সমূহ

To Top