স্বাস্থ্য কথা

ঠোঁট ফাটা বন্ধ করতে করুন এই কাজগুলো

শীতে সারাক্ষণ ঠোঁটটা শুকনো হয়ে যাকে। ভ্যাসলিন বা পেট্রোলিয়াম জেলি ঠোঁটকে সাময়িক স্বস্তি দেয় ঠিকই। কিন্তু স্থায়ী স্বস্তি দেয় না। অথচ শীতকালের এই শুষ্ক ঠোঁটের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার বহু উপায় বাড়িতেই রয়েছে।

ঠোঁটকে শুষ্কতার হাত থেকে বাঁচাতে মধু খুবই ভালো সমাধান। অ্যান্টি ব্যাক্টেরিয়াজাত পদার্থ হওয়ায় এটি ঠোঁটকে সুরক্ষা দেয় ভালোভাবেই। অ্যালোভেরা সবসময়েই ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। অ্যালোভেরা শুষ্ক ঠোঁটকে নমনীয় করতেও সাহায্য করে। রোজ ঠোঁটে অ্যালোভেরা জেল ব্যবহার করলে শুষ্ক ঠোঁটের সমস্যা দূর হয়।

ঠোঁট ফাটার সমস্যা দূর করতে অলিভ বা জলপাইয়ের তেলও খুবই উপকারী। দিনে দুই বার করে ঠোঁটে জলপাইয়ের তেল ব্যবহার করলে ঠোঁট কোমল এবং নমনীয় থাকে। নারকেল তেলে প্রচুর পরিমানে ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে। তাই ঠোঁটকে শুষ্কতার হাত থেকে বাঁচাতে প্রত্যেকদিন ঠোঁটে নারকেল তেল ব্যবহার করুন।

***এই ধরনের আরও টিপস-ট্রিকস, অফার এবং শিক্ষামূলক পোস্ট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন***

ভ্যাসলিন বা পেট্রোলিয়াম জেলি একসঙ্গে ঠোঁটে ব্যবহার করতে পারেন। এতেও ঠোঁট ফাটার সমস্যা থেকেও রেহাই মিলবে।

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ

নতুন পোস্ট’সমূহ

To Top