স্বাস্থ্য কথা

চিকেন পক্স হলে যে কাজগুলো করা ঠিক নয়

চিকেন পক্স ভাইরাসের দ্বারা সৃষ্ট অস্বস্তিকর একটি অসুখ এবং সাধারণত শিশুদের হয়ে থাকে বেশি। চিকেন পক্স হলে জ্বর, মাথাব্যথা, গলা ব্যথা অথবা পেটে ব্যথা হয়ে থাকে। এর সবচেয়ে খারাপ দিকটি হচ্ছে সারা শরীরে লাল র‍্যাশ হওয়া, যা চুলকানির সৃষ্টি করে। এই র‍্যাশ প্রথমে পেটে বা পিঠে এবং চেহারায় হতে দেখা যায়, পরে সারা শরীরেই ছড়িয়ে পড়ে।

চিকেন পক্স অত্যন্ত সংক্রামক একটি ব্যধি এটা আমরা সবাই জানি। এ কারণেই চিকেন পক্সের ফুসকুড়িগুলো শুকিয়ে না যাওয়া পর্যন্ত ঘরের ভেতরে থাকাটাই বুদ্ধিমানের কাজ। এছাড়াও যে কাজগুলো চিকেন পক্স হলে এড়িয়ে যাওয়া উচিৎ সেগুলোর বিষয়েই জানবো আজ।

১। ঠান্ডা অথবা ফ্রিজের খাবার

চিকেন পক্স হলে শরীরে অনেক তাপ উৎপন্ন হয় বলে ঠান্ডা অথবা ফ্রিজের খাবার খেলে কিছুটা উপশম হয় বলে মনে করা হয়। যদিও এটি করলে নিউমোনিয়া হওয়ার ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়। ইনফেকশন শরীরে ছড়িয়ে পড়লে এমন হয়। তাই ঠান্ডা খাবার খাওয়া এড়িয়ে চলুন।

২। পর্যাপ্ত পানি পান না করা

চিকেন পক্স হলে জ্বর আসে এবং ক্ষুধা কমে যায় বলে পানি পান করা হয় কম। কিন্তু শরীরের তাপমাত্রা কমানোর জন্য এবং সংক্রমণের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার জন্য হাইড্রেটেড থাকাটা জরুরী। এজন্যই পানি ও অন্যান্য তরল খাবার খাওয়া প্রয়োজন।

৩। স্বাস্থ্যবিধি মেনে না চলা

চিকেন পক্স হলে সারা শরীরে তরলে পরিপূর্ণ ফুসকুড়ি থাকে বলে সঠিক স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা প্রয়োজন। সঠিক হাইজিন মেনে না চললে ফুসকুড়িগুলো ফেটে যদি তরল বেরিয়ে যায় তাহলে ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ ছড়িয়ে যাওয়ার ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়। তাই এই সময়ে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা মেনে চলা অনেক প্রয়োজনীয়। ত্বক চুলকানো থেকে বিরত থাকতে হবে এবং ভুলক্রমে চুলকে ফেললেও হাত ধুয়ে ফেলতে হবে তাড়াতাড়ি।

৪। অন্যের সাথে পোশাক শেয়ার করা

যেহেতু এটি একটি অত্যন্ত সংক্রামক ব্যাধি তাই এই রোগে আক্রান্তদের ব্যবহার্য জিনিসের সংস্পর্শে আসলে সুস্থ ব্যক্তিও এই রোগে আক্রান্ত হতে পারেন। তাই রোগীর জামাকাপড় , তোয়ালে বা চাদর এগুলো যেন অন্য কেউ ব্যবহার না করেন সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

৫। নিজে নিজে ঔষধ সেবন করা

চিকেন পক্সের রোগীদের জ্বর থাকে বলে নিজে নিজেই অ্যাসপিরিন জাতীয় ঔষধ সেবন করাটা ঠিক নয়। কারণ এর ফলে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। চিকিৎসকের নির্দেশনা অনুযায়ীই ঔষধ গ্রহণ করতে হবে এবং ফলোআপে থাকতে হবে।

***এই ধরনের আরও টিপস-ট্রিকস, অফার এবং শিক্ষামূলক পোস্ট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন***

সূত্র: দ্যা হেলথ সাইট

নতুন পোস্ট’সমূহ

To Top