পাঁচমিশালী

মশা তাড়ানোর দীর্ঘস্থায়ী ও স্বাস্থ্যসম্মত উপায় জেনে নিন মোটামুটি ৩+ দিন ঘরে মশা থাকবে না?

মশা তাড়ানোর দীর্ঘস্থায়ী ও স্বাস্থ্যসম্মত উপায় জেনে নিন মোটামুটি ৩+ দিন ঘরে মশা থাকবে না? ঘর থেকে মশা-মাছি দূর করতে স্যাভলন দিয়ে ঘর পরিষ্কার করুন। এটি আপনার ঘর জীবাণু মুক্ত রাখবে। কয়েল-এরোসল ব্যবহার না করে মশা তাড়ানোর প্রাকৃতিক কিছু উপায়:

কর্পূর

মশা তাড়াবার একটা সহজ উপায় হল কর্পূর এর ব্যবহার, কয়েক টুকরো কর্পূর আধকাপ পানিতে ভিজিয়ে খাটের নীচে রেখে দিন। এতে নিশ্চিত ভাবে বাসায় মশার উপদ্রপ কমে যাবে।

রোদ

ঘরের, লেপ, তোশক, বালিস, কাপড় ইত্যাদি মাঝেমধ্যে রোদে দিতে হবে। এতে করে নানান পোকা মাকড় কম হয়।
সতর্ক করসম্পর্কযুক্ত প্রশ্ন যোগ করমন্তব্য করুনমশা তাড়ানোর কয়েকটি উপায়- কর্পূরঃ কর্পূরের ব্যাবহার মশাবিতাড়ক হিসাবে চমৎকার কাজ করে। অন্যান্য প্রাকৃতিক সমাধানের মধ্যে সবচেয়ে দীর্ঘস্থায়ী কার্যকরী উপাদান হচ্ছে কর্পূর।

খুবই বেশি।অল্প পরিমাণ কর্পূর ঘরের একটি নির্দিষ্ট স্থানে রেখে দিয়ে ঘরের দরজা জানালা বন্ধ করে দিন এবং ১৫-২০ মিনিট পর দেখুন, পুরো ঘর মশা মুক্ত হয়ে গেছে ।

তুলসিঃ প্যারাসিটোলোজি রিসার্চ জার্নালের প্রকাশিত তথ্য অনুসারে, মশার শুককীট মারতে এবং মশাকে দূরে রাখতে তীব্র ভাবে কাজ করে তুলসী। আপনার ঘরের বারান্দায় অথবা জানালার পাশে তুলসী গাছ লাগিয়ে রাখুন এবং মশা থেকে নিশ্চিন্তে থাকুন। এই গাছের মধ্যে এমন কিছু বৈশিষ্ট্য আছে মশাকে আপনার ঘররের ভিতর আসতে দিবে না ।

রসুনঃ মশা তাড়ানোর আরেকটি অন্যতম উপাদান হচ্ছে রসুন। রসুনের শক্তিশালী এবং তীব্র কটু গন্ধই আপনাকে মশার কামড় থেকে বাঁচাতে এবং আপনার ঘরকে মশা মুক্ত করতে যথেষ্ট উপকারী ভূমিকা রাখে।

কিছু রসুনের কোষ নিয়ে তা পানিতে সেদ্ধ করে নিন এবং সেই পানি পুরো ঘরে স্প্রে করে দিন যদি আপনি মশা থেকে দূরে থাকতে চান, ইচ্ছে করলে আপনি আপনার শরীরেও স্প্রে করতে পারেন যদি আপনি মশার কামড় থেকে বাঁচতে চান।

লেবু ও কিছু লবঙ্গ:
আমাদের দৈনন্দিন জীবনে খুবই বিরক্তিকর উপদ্রব হচ্ছে মশা। মশার স্প্রে, মশার কয়েল কোনো কিছুতেই যেন কাজ হয় না। এছাড়া গন্ধযুক্ত কয়েল বা মশার ওষুধে অনেকেরই শ্বাসকষ্ট হয়, দেখা দেয় ত্বকের সমস্যাও।অন্যদিকে মশা নামক এই প্রাণী অতি ক্ষুদ্র হলেও মানুষের মৃত্যুর কারণ হতে পারে। তাই আজ আপনাদের জন্য রইলো মশা তাড়ানোর সহজ একটি ঘরোয়া উপায়। এর জন্য শুধু দরকার একটা লেবু ও কিছু লবঙ্গ।

উপকরণঃ ১। লেবু 2. লবঙ্গ
কম বেশি সবার ফ্রিজেই থাকে কয়েকটা লেবু। তবে ফ্রিজে থাকতে থাকতে লেবু পেকে গেলে সেটা আবার কেউই খেতে চান না। এই পুরনো লেবু ব্যবহার করেই আপনি মশা তাড়াতে পারেন। লেবুর ফ্লেভার বেশীরভাগ মানুষই বেশ পছন্দ করেন, তাছাড়া এটি মানুষের জন্য ক্ষতিকরও নয়।সুতরাং ফ্রিজে রাখা পুরনো লেবু দিন লবঙ্গ। এবার এটাকে ঘরের কোনো খোলা জায়গায় রেখে দিন। এতে যেমন ঘরে লেবুর মিষ্টি একটি সুগন্ধ ছড়িয়ে পড়বে, তেমনি মশা এবং পোকামাকড় থাকবে ঘর থেকে অনেক দূরে।

প্রাকৃতিক উপায়ে মশা তাড়াতে ব্যবহার করুন লেবু ও লবঙ্গ! শিখে নিন সহজ একটি পদ্ধতি-

***এই ধরনের আরও টিপস-ট্রিকস, অফার এবং শিক্ষামূলক পোস্ট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন***

Thanks.

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ

নতুন পোস্ট’সমূহ

To Top