লাইফস্টাইল

অপরূপ সুন্দরি হয়ে উঠতে এই ঘরোয়া পদ্ধতিগুলির সাহায্য নিন

আসবে আসবে করে গরম তো এসেই গেল। এই সময় ঘামের প্যাচপ্যাচেনির চোটে সৌন্দর্যের দফারফা হবেই। তবে এই প্রবন্ধে আলোচিত ফেস মাস্কগুলি মুখে লাগালে কিন্তু গরম আপনাকে ছুঁতেও পারবে না। শুধু তাই নয়, পারদের কাঁটা ৪০ ডিগ্রি ছুঁলেও আপনি হয়ে উঠবেন রূপবতী!
এমন কিছু ঘরোয়া ফেস প্যাক আছে, যা এক্ষেত্রে দারুন কাজে আসে। এগুলি ত্বকের ঔজ্জ্বলতা তো বাড়ায়ই, সেই সঙ্গে ত্বককে ভেতর থেকে সুন্দর করে তোলে। ফলে ত্বকের সার্বিক সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায়। তাহলে অপেক্ষা কিসের! গরমকে হাক মানাতে এক্ষুনি জেনে নিন ঘরোয়া এইসব ফেস প্যাকগুলির বিষয়ে।

১. নারকেল তেল এবং চিনির স্কার্ব:
অল্প করে চিনি নিয়ে তাতে ১ চামচ নারকেল তেল আর ১ চামচ অলিভ অয়েল

মেশান। ভাল করে সবকটি উপকরণ মিশিয়ে নিয়ে সারা মুখে লাগিয়ে কম করে ১০ মিনিট মাসাজ করুন। তারপর হালকা গরম জল দিয়ে মুখটা ধুয়ে ফেলুন। প্রসঙ্গত, এই ফেস স্কার্বটি ত্বকের উপরিঅংশে জমে থাকা ময়লা পরিষ্কার করে দেয়। ফলে ত্বক উজ্জ্বল হয়ে ওটে। আর নারকেল তেল এক্ষেত্রে ত্বকের উপরে ব্যাকটেরিয়া যাতে ঘর বানাতে না পারে, সেদিকে খেয়াল রাখে। সেই সঙ্গে ত্বককে প্রাণবন্তও করে তোলে।

২. ওটমিল এবং দইয়ের ফেস মাস্ক:
এক কাপ ওটমিলের সঙ্গে হাফ কাপ দই মেশান। তারপর তাতে ১ চামচ হলুদ গুঁড়ো এবং ১ চামচ গোলাপ জল মিশিয়ে নিন। এবার সবকটি উপকরণ ভাল করে মিশিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে ফেলুন। সারা মুখে এই পেস্টটা কিছুক্ষণ লাগিয়ে রেখে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। প্রসঙ্গত, ওটমিল এবং দই ত্বককে উজ্জ্বল করে। শুধু তাই নয়, ত্বকের উপরে জমে থাকা মৃত কোষের আবরণ সরিয়ে দিয়ে মুখের সৌন্দর্যও বাড়ায়।

৩. কফি আর নারকেল তেলের স্কার্ব:
পরিমাণ মতো কফি বিন নিয়ে ব্লেন্ডারে ফেলে পাউডার বানিয়ে ফেলুন। তারপর সেই পাউডারের সঙ্গে ১-২ চামচ নারকেল তেল মিশিয়ে নিন। দুটি উপকরণ ভাল করে মিশে যাওয়ার পর সেটি মুখে লাগিয়ে ভাল করে মাসাজ করুন। কফিতে উপস্থিত ক্যাফিন ডার্ক সারকেল কমায়। সেই সঙ্গে ত্বককে প্রাণবন্ত করে তোলে। আর নারকেল তেল ত্বকের শুষ্কতা দূর করতে সাহায্য করে।

৪. ভাত এবং মধুর মিশ্রন:
অল্প করে ভাত নিয়ে ব্লেন্ডারে ফেলে পাউডার বানিয়ে ফেলুন। তারপর তাতে ১ চামচ মধু দিয়ে ভাল করে দুটি উপকরণ মেশান। এবার এই স্কার্বটি সারা মুখে লাগিয়ে কম করে ১০ মিনিট মাসাজ করুন। সময় হয়ে গেলে ঠান্ডা জল দিয়ে মুখটা ভাল করে ধুয়ে ফেলুন। এই ফেস স্কার্বটি মৃত কোষেদের ধুয়ে ফেলে ত্বককে উজ্জ্বল করে। সেই সঙ্গে মধুতে উপস্থিত অ্যান্টিভাইরাল এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান ত্বকের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটায়।

৫. টুথপেস্ট আর নুনের স্কার্ব:
অল্প করে টুথপেস্ট নিয়ে তার সঙ্গে পরিমাণ মতো নুন মিশিয়ে নিন। ইচ্ছা হলে এতে এক টিমটে হলুদ গুঁড়োও মেশাতে পারেন। সবকটি উপকরণ ভাল করে মিশে যাওযার পর সেটি মুখে লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই ফেস স্কার্বটি ত্বককে উজ্জ্বল করে। সেই সঙ্গে ব্রণরও প্রকোপও কমায়। প্রসঙ্গত, ত্বকের দাগ কমিয়ে ফেলতেও এই ঘরোয়া ফেস প্যাকটি দারুন কাজে আসে।

৬. পেঁপে এবং চিনির স্কার্ব:
পেঁপেতে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় অ্যাকটিভ এনজাইম, যা কোলাজেনের মাত্র বৃদ্ধি করে ত্বককে সুন্দর করে তোলে। কীভাবে বানাতে হবে এই ফেস স্কার্বটি? খুব সহজ! অল্প করে পেঁপে নিয়ে সেটি চটকে নিন। তারপর তাতে অল্প করে চিনি এবং অলিভ অয়েল মিশিয়ে ভাল করে মেখে নিন সবকটি উপকরণ। তাহলেই আপনার ফেস স্কার্ব রেডি হয়ে যাবে। এবার ফেস প্যাকটা সারা মুখে লাগিয়ে মাসাজ করুন। দিনে ২-৩ বার এই স্কার্বটি মুখে লাগালে দেখবেন অল্প দিনেই আপানরা ত্বক উজ্জ্বল এবং সুন্দর হয়ে উঠবে।

৭. মেয়োনিজ আর হলুদ গুঁড়ো:
মেয়োনিজে প্রচুর মাত্রায় ফ্যাটি অ্যাসিড থাকার কারণে এটি ত্বককে উজ্জ্বল এবং প্রাণবন্ত করে তুলতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। কয়েক চামচ ময়োনিজের সঙ্গে ১ চামচ হলুদ গুঁড়ো এবং অ্যালো ভেরা জেল মিশিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে ফেলুন। এটি মুখে লাগিয়ে ভাল করে মাসাজ করার পর ঠান্ডা জল দিয়ে সারা মুখটা ধুয়ে ফেলুন। দিনে কম করে দুবার এই ফেস প্যাকটি মুখে লাগালে ত্বক উজ্জ্বল হয়ে ওঠে।

৮. অ্যালো ভেরা মাস্ক:
ব্রণ এবং শুষ্ক ত্বকের সমস্যা কমাতে এই ফেস প্যাকটি দারুন কাজে আসে। আসলে অ্যালো ভেরাতে রয়েছে অ্যান্টি-ব্য়াকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি প্রপাটিজ, যা ত্বকের অন্দরের প্রদাহ এবং সংক্রমণ কমিয়ে স্কিনকে সুন্দর কোরে তোলে। সেই সঙ্গে তৌলাক্ত ত্বকের সমস্যাও কমায়।

***এই ধরনের আরও টিপস-ট্রিকস, অফার এবং শিক্ষামূলক পোস্ট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন***

পরিমাণ মতো অ্যালো ভেরা জেল নিয়ে তাতে ১ চামচ যে কোনও একটা এসেনশিয়াল তেল এবং ১ চামচ চিনি মিশিয়ে নিন। যখন দেখবেন উপকরণগুলি ভাল করে মিশে গেছে, তখন সেটি মুখে লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। দিনে দুবার এই প্যাকটি মুকে লাগালে ভাল ফল পাবেন।

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ

You must be logged in to post a comment Login

নতুন পোস্ট’সমূহ

To Top