প্রোডাক্ট রিভিউ

ফিরে এল নতুন নোকিয়া ৩৩১০, নোকিয়া ৩৩১০ এ আগে যা ছিল আর এখন যা যা থাকছে

অনেকদিন পর বাজারে ফিরল নোকিয়া। তারা ফিরিয়ে নিয়ে এল তাদের লিজেন্ডারি ফোন “নোকিয়া ৩৩১০”। ব্যবহারকারীদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে তারা নতুন রূপে ফিরিয়ে নিয়ে এলো “নোকিয়া ৩৩১০”। নোকিয়া ৩৩১০ নতুন ভার্সন ১৭ বছর পর বাজারে ফিরল, আগের সেই বিশাল  চার্জের  ব্যাকআপ ও টেকসই ফোনের সাথে এখন যুক্ত হচ্ছে নতুন নতুন সব ফিচার।

নোকিয়া সর্বস্তরের মানুষের কথা চিন্তা করে সবার হাতে স্মাট ফোন পৌছে দেওয়ার জন্য নতুনভাবে প্রচেস্টা শুরু করেছে। তো চলুন দেখে নেওয়া যাক নোকিয়া ৩৩১০ এ আগে যা ছিল আর এখন যা যা থাকছে:

নোকিয়া ৩৩১০ এ আগে যা ছিল-

বডি:

  • ২০০০ সালে যখন নোকিয়া ৩৩১০ বাজারে ছিল তখন ফোনটি লম্বায় ও পাশাপশি  ছিল  ১১৩ x ৪৮ মি.মি এবং ২২ মি.মি পুরু।

ওয়েট:

  • ওজনে ছিল ১৩৩ গ্রাম।

ডিসপ্লে:

  • ১৫ ইন্চি বা ৮৪ x ৪৮ রেজুলেশন মনোক্রম LCD ডিসপ্লে।

ক্যামেরা:

  • ২০০০ সালে ফোনে ক্যামেরার কথা চিন্তা করাও পাপ ছিল।

ব্যাটারী লাইফ:

  • ৯০০ mAh রিমুভাল ব্যাটারী,৫৫ ঘন্টা স্টানবাই থাকতে পারতো ফোনটি। ২.৩০ ঘন্টা টানা কথা বলা যেত। আর সেই ভাগ্যবান ব্যক্তি হন তাহলে এটি কখনো ১ সপ্তাহ আপনাকে টানা ব্যাকআপ দিয়েছে।

স্টোরেজ:

  • সেইসময় ফোনটিতে কিছু কন্টাক নাম্বার, কিছু সংখ্যক sms জমে গেলেই স্টোরেজ ফুল দেখাতো। এবং এসডি কার্ড সার্পোট করতো না।

হেডফোন জ্যাক:

  • নাই

গেমস:

  • স্নেকস গেমটার কথা মনে আছে? জী এ গেমটি একটা সময় অনেক খেলা হয়েছে এ ফোনে।

মূল্য:

  • এখনকার সময় অনুযায়ী তখন এর বাজার মূল্য ছিল ১০৯৯৯ টাকা।

এবং সর্বশেষ এ ফোনটি বাজারে এসেছিল ২০০০ সালে।

নোকিয়া ৩৩১০ এ এখন যা যা আছে-

বডি:

  • এখনকার নোকিয়া ৩৩১০ মোবাইল ফোনটি লম্বায় ও পাশাপশি হল  ১১৫.৬ x ৫১ মি.মি। এবং ১২.৮ মি.মি পুরু। এখনকার নোকিয়া ফোনটি আপনি হতে রাখতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবেন। আগের ফোনটির মতো ভারী ফিল হবে না।

ওয়েট:

  • নতুন ফোনটির ওজন ৭৯.৬ গ্রাম।

ডিসপ্লে:

  • ২.৪ ইন্চি বা  ৩২০ x ২৪০ কালার ডিসপ্লে।

ক্যামেরা:

  • এখনকার নোকিয়া ৩৩১০ মোবাইলে নতুন করে যুক্ত হয়েছে ২ মেগা পিক্সেল ক্যামেরা। কিন্তু এটিতে ফ্রন্ট ক্যামেরা নেই।

ব্যাটারী লাইফ:

  • নতুন ১২০০mAh, ১২০০mAh সেল ব্যাটারী  আপনাকে পুরো ১ মাস স্টানবাই ব্যাকআপ দিবে। এবং যে কেউ চাইলে ২২ ঘন্টা টানা কথা বলতে পারবেন।

স্টোরেজ:

  • নতুন নোকিয়া ৩৩১০ফোনে রয়েছে ১৬GB ইন্টারনার্ল স্টোরেজ। যা কিনা  ৪০০০ গানের জন্য যথেষ্ট পরিমান জায়গা। নতুন নোকিয়া ফোনটি ৩২gb sd কার্ড সার্পোটেট।

হেডফোন জ্যাক :

  • আছে।

গেমস:

  • এদিক থেকে নতুন নোকিয়া ৩৩১০ ফোনটি আপনাকে হতাশ করবে। সেই পুরোনো স্নেকস গেমটি রয়েছে কিন্তু আগের স্নেকস গেমটির মতো নয়। এবং গেমটি খেলে আপনি আগের মতো মজাও পাবেন না।

মূল্য:

  • বর্তমান বাজার মূল্য অনুযায়ী  আপনাকে  বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ৩৪৭০ টাকা গুনতে হবে আপনিও যদি নতুন নোকিয়া ৩৩১০ এর মালিক হতে চান।

নোকিয়া ৩৩১০ সর্বশেষ নতুন ভার্সন নিয়ে ২০১৭ সালে আবার মার্কেট এ আসে।

পরিশেষে

এর আগে ২০০০ সালের সেপটেম্বরে ১ তারিখে রিলিস হওয়া নোকিয়ার হেন্ডসেট নোকিয়া ৩৩১০ প্রচুর পরিমান ব্যাবসা সফল একটি প্রোডাক্ট ছিল। তখন নোকিয়া ৩৩১০ এর গ্রহনযোগ্যতা ফোন ব্যবহারকারীদের কাছে দিন দিন বাড়তেই থাকে। মোবাইলফোন বাজারের পুরো বাজারই তখন নোকিয়ার দখলে চলে আসে।

নোকিয়া ৩৩১০  নোকিয়া কোম্পানীর সবচেয়ে বেশী বিক্রিত ফোন মডেল গুলোর একটি। যেকোন কোম্পানী যেকোন ফোন নোকিয়া ৩৩১০ মত ব্যবসা সফল প্রডাক্ট হতে পারেনি।নোকিয়া ৩৩১০ ছিল নোকিয়া কোম্পানীর সবচেয়ে  জন্য লাভজনক প্রোজেক্ট গুলোর মাঝে একটি। তখন পুরো বিশ্বে ১২৬ মিলিয়ন নোকিয়া ৩৩১০ বিক্রি করতে পেরেছিল নোকিয়া। এখন দেখার বিষয় হচ্ছে ২০১৭ সালে রিলিস হওয়া নোকিয়া ৩৩১০ ফোনটি কতোটুকু ব্যবসা সফল পন্য হয় নোকিয়ার জন্য।

সবাই ভালো থাকবেন। আর টেকটিমের সাথেই থাকুন, মেতে উঠুন প্রযুক্তির সুরে।

***এই ধরনের আরও টিপস-ট্রিকস, অফার এবং শিক্ষামূলক পোস্ট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন***

আল্লাহ হাফেজ।

নতুন পোস্ট’সমূহ

To Top