গল্প ও কবিতা

★★স্ত্রীকে নিয়ে কিছু ভাবনা★★

১। আমার স্ত্রী কখনো আমার আগে ঘুম থেকে উঠতে পারবেনা। সবসময় আমি তার আগে ঘুম থেকে উঠে তার ঘুমন্ত নিষ্পাপ চেহারার দিকে তাকিয়ে থাকবো।

২। শীত হোক আর গরম হোক, সবসময় দুজনের ৮টি হাত পা একত্রিত করে গিট্টুবানিয়ে ঘুমাবো, সে হবে আমার গিট্টু রাণী।

৩। সকালবেলা আমি অফিসে যাওয়ার সময় পাঁচ, আবার অফিস থেকে ফেরার পরে পাঁচ মোট ৫+৫=১০ টি কিস করতে হবে, প্রতিদিন।

৪। আমি অফিসে কর্মরত। হঠাৎ আকাশ মেঘাচ্ছন্ন। কিছুক্ষণের মধ্যেই বৃষ্টি নামবে…..!!
আমি ঝটপট করে বাসায় চলে আসবো। স্ত্রী আমাকে দেখে অবাক! কি ব্যাপার, এই অসময়ে তুমি বাসায়?
বাইরে তখন বৃষ্টি শুরু হয়ে গেছে। আমি হাত ধরে টেনে তাকে ছাদে নিয়ে যাবো। ইচ্ছে মতো ভিজবো দুজন।
তেমনকিছুই হবেনা, শুধু বৃষ্টিতে ভেজার আনন্দ।

৫। লাঞ্চের পূর্বমুহূর্ত। হঠাৎ স্ত্রী ফোন করে বলবে, এই! আজ রান্না করতে ভালো লাগছেনা। চলোনা আজ দুজনে বাহিরে লাঞ্চ করি?
আমি বাসায় চলে আসবো। এসেই অবাক!! আমার সব ধরনের প্রিয় খাবার রান্না করে সাজিয়ে রেখেছে ডাইনিং টেবিলে!!!
আমি তার দিকে কৌতূহলি দৃষ্টিতেতাকাতেই সে খিল খিল করে হেসে লুটিয়ে পড়বে আমার শরীরের উপর। কানে কানে ফিস ফিস করে বলবে, কেমন হলো সারপ্রাইজটা???? আমি তাকে জড়িয়ে ধরবো।

৬। ১১ই ডিসেম্বর। প্রিয়তমার জন্মদিন।
১০ তারিখ সকাল থেকেই তার সাথে প্রচুর ঝগড়া শুরু করবো। আমার আচরণে সে অতিষ্ঠ হয়ে উঠবে। সন্ধার দিকে ঝগড়ার মাত্রা আরো বাড়িয়ে দেব। একসময় তাকে প্রচন্ড রাগিয়ে ঘর থেকে বের হয়ে যাবো এক কাপড়ে।
সে চিন্তায় পড়ে যাবে। ভাবতে থাকবে, এই শীতের রাতে পাতলা একটি শার্টগায়ে দিয়ে কোথায় চলে গেল মানুষটা??
আস্তে আস্তে রাত গভীর হতে থাকবে।

***এই ধরনের আরও টিপস-ট্রিকস, অফার এবং শিক্ষামূলক পোস্ট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন***

ঠিক ১২.১ মিনিট। দরজায় কনিংবেলের শব্দ শুনে দৌড়ে এসে দরজা খুলবে সে। খুলেই অবাক!!
তার জন্য ১২পাউন্ডের বিশাল কেক, তার প্রিয় ফুল, প্রিয় পারফিউম, প্রিয় লেখকের বই নিয়ে আমি বাইরে দাড়িয়ে আছি।
সে দরজা খুলতেই, আমি ফুলগুলো তারদিকে বাড়িয়ে দিয়ে বলবো- Happy birth day…
খুশিতে তার চোখে জল এসে যাবে। পাগলের মত আমাকে জড়িয়ে ধরে বলবে, এমন পাগলের সাথে কি রাগ করে থাকা যায়??

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ

You must be logged in to post a comment Login

নতুন পোস্ট’সমূহ

To Top